LalmohanNews24.Com | logo

২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৬ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

হাসপাতালের কেবিনে বসে রেল কর্মকর্তার ইয়াবা বিক্রি!

মোঃ জসিম জনি মোঃ জসিম জনি

সম্পাদক ও প্রকাশক

প্রকাশিত : এপ্রিল ০২, ২০১৮, ১৬:২৬

হাসপাতালের কেবিনে বসে রেল কর্মকর্তার ইয়াবা বিক্রি!

ডেস্ক রিপোর্টঃ ইয়াবা বিক্রী নিয়ে দু‘গ্রুপের মারামারি। এতে হাতে গুরুতর জখম হন তিনি। মুচলেখা দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ইয়াবা ব্যবসায়ী হিসেবে চিহ্নিত চট্টগ্রামের রেলওয়ে পরিবহন বিভাগের পরিচালাক মো. বখতিয়ার হোসেন।

কিন্তু সেখানেও থেমে নেই তার অবৈধ কাজকর্ম। চিকিৎসাধীন অবস্থায় থেকেও ইয়াবা বিক্রির কাজ করছিলেন মো. বখতিয়ার হোসেন। আর এ সময় হাতে নাতে রেলওয়ের এই কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

রোববার রাত সাড়ে ১১টায় হাসপাতালের ৬ নম্বর কেবিন থেকে মো. বখতিয়ারকে আটক করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে ১ হাজার ইয়াবা ও ১০০ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়।

এ বিষয়ে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের বিভাগীয় চিকিৎসা কর্মকর্তা ইবনে শফি আব্দুল আহাদ সাংবাদিকদের জানান, গত দুই দিন আগে বখতিয়ারএকটি মারামারির ঘটনায় আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। তাকে হাসপাতালে মুচলেকা দিয়ে ভর্তি করানো হয়েছে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মেট্রো অঞ্চলের উপপরিচালক শামীম আহমেদ বলেন, রেলওয়ে পরিবহন বিভাগের পরিচালক মো. বখতিয়ার হোসেন নিজেই একজন মাদকাসক্ত। সে হাসপাতালের কেবিন বসে ইয়াবা বিক্রি করছিল। তার কাছ থেকে ১ হাজার ইয়াবা ও ১০০গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, রেলের কর্মচারী হিসেবে হাসপাতালে চিকিৎসা পাওয়ার কথা। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে ভর্তি করাতে চায়নি। তার ব্যক্তিগত ফাইলে দেখা গেছে মুচলেখা দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এছাড়া এর আগে নগরীর বেসরকারি সিএসসিআর হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছিল। সেখানেও তার ব্যক্তিগত ফাইলে মাদকাসক্ত বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এদিকে মাদকসহ আটক হওয়ার পরও বখতিয়ারকে বহিস্কার করনি পরিবহন বিভাগ। জানতে চাইলে ডিটিও ফিরোজ ইফতেখার  বলেন, এখনো বহিস্কার করিনি। বিষয়টি ফলোআপ করি। সবকিছু জানি। তারপর ব্যবস্থা নেব।

হাসান পিন্টু

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি