LalmohanNews24.Com | logo

১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সোনার থেকেও দামি ফল

সোনার থেকেও দামি ফল

ফলের দাম লাখ লাখ টাকা! কখনও শুনেছেন ? ঋতু অনুযায়ী আমরা নানারকমের ফল খাই। যেমন- আপেল, আঙুর, কলা, লেবু , পেয়ারা আরো কত কি! সেসব ফলের দাম কত হয়? সেভাবে বেশি না হলেও ঋতু অনুযায়ী ওঠা নামা করে ফলের দাম। কিন্তু তা বলে কয়েক লক্ষ টাকা দিয়ে ফল অনেকেই হয়তো কেনেননি। জাপানে এক সুস্বাদু ফল পাওয়া যায়। ফলটির নাম ইউবারি মেলন। এই ফল দেখতে খুব একটা সুন্দর না হলেও দাম কিন্তু আকর্ষণীয়। বাইরে থেকে দেখতে অনেকটা লাগে তরমুজের মতো। তবে, স্বাদে কিন্তু আবার কমলালেবুর কাছাকাছি। আবার ভেতরটা দেখতে কিছুটা মিষ্টি কুমড়ের মতো।

জেনে রাখা ভালো যে, ফল গোত্রে এটাই হচ্ছে দুনিয়ার সবচাইতে দামি ফল। চাষের পদ্ধতি এবং ক্রস-প্রজননের উদ্ভাবনের মাধ্যমে প্রতিদিন নতুন নতুন জাতের ফল ও শাকসবজি উদ্ভূত হচ্ছে। সারা বিশ্বের এক্সটিক ফলগুলি প্রায়শই আমাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এবং কৌতূহল জাগিয়ে তোলে, তবে ইউবারি মেলন তাদের সবাইকেই হয়তো ছাপিয়ে যাবে । এই ফলের যা দাম তা দিয়ে অনায়াসেই এক টুকরো জমি বা ভারী সোনার গয়না কিনে ফেলা যায়। রিপোর্ট অনুযায়ী, এক কেজি ইউবারি তরমুজের দাম ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। এই ফলটি জাপানে বিক্রি হয় এবং এটি শুধুমাত্র সমাজের শীর্ষ স্তরের ব্যক্তিরাই কিনে থাকেন। কারণ এর দাম সাধারণের ধরাছোঁয়ার বাইরে।

এই ফল সহজে পাওয়াও যায় না। এক বিশেষ বর্গের মানুষ ইউবারি মেলন বিক্রি করেন। আগ্নেয়গিরি সৃষ্ট মাটি এবং অতিরিক্ত বর্ষণ এই ফল চাষের উপযুক্ত পরিবেশ। বিলাসবহুল খাবার এবং পানীয় যেমন বার্বন, শ্যাম্পেন বা কোবে বিফের মতো ইউবারি মেলন এক বিশেষ পরিবেশের মধ্যে ইউবারি অঞ্চলে চাষ করা হয়। এই ফল বড় হতে সময় নেয় ১০০ দিন। ২০১৯ সালে এক জোড়া ইউবারি মেলন বিক্রি হয়েছিল প্রায় ৩২ লক্ষ টাকায়। জাপানে এটাই একমাত্র ফল নয়, যার দাম কেজি প্রতি লক্ষ টাকার উপর। এমন আরো বেশ কিছু ফল, সবজি পাওয়া যায়, যার দাম লাখ টাকার উপরে। এগুলোর আবার চাহিদাও অনেক। যদি পকেট পারমিট করে আর মনে সাহস থাকে, তাহলে একবার আশ মিটিয়ে নিতে পারেন ইউবারি মেলন কিনে।

সূত্র: dnaindia.com

-এইচপি

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি