LalmohanNews24.Com | logo

৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২০শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেলো পিতার

মোঃ জসিম জনি মোঃ জসিম জনি

সম্পাদক ও প্রকাশক

প্রকাশিত : মার্চ ৩০, ২০১৮, ১৬:৫০

ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেলো পিতার

লালমোহননিউজ টোয়ান্টিফোর ডটকমঃ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় জমির সীমানার পিলার গাড়তে গিয়ে ছেলের সাথে সংঘর্ষ বাধে মোস্তাফিজার গং এর। আর ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ঘটনাস্থলেই মারা জান শামসুল (৫০) নামে একজন। এ সময় তার স্ত্রী, পুত্র ও ভাই গুরতর আহত হলে তসদেরকে রংপুর মেডিকেল কলেজ প্রেরন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ মার্চ) দুপুরে উপজেলার সানিয়াজান ইউনিয়নের ঠ্যাংঝাড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। নিহত শামসুল হক ঐ এলাকার মৃত অনর উদ্দিনের ছেলে। আর আহতরা হলেন, নিহত শামসুলের স্ত্রী নাজমা বেগম (৩৫), ছেলে নাজমুল (২২), ও ভাই বাবুল(৩৮)।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, মোস্তাফিজার, মোফাজ্জল, মন্টু, মোতালেফ গং এর কাছে ১০ শতক জমি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত শামসুলের বিরোধ চলে আসছিলো। এমন অবস্থায় গত মঙ্গলবার স্থানীয় মেম্বার বিপ্লব এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি নিয়ে জমি মেপে সিমানা নির্নয় নির্ণয় করে বাসের খুটি গেড়ে দেন।

সেই কারণে আজ শামসুলের ছেলে নাজমুল জমিতে সীমানা পিলার বসাতে গেলে সেখানে মোস্তাফিজার গংরা হামলা চালায়। এ সময় ছেলেকে বাঁচাতে বাবা শাসসুল ছুটে আসলে তার উপরেও হামলা চালায় মোস্তাফিজার গং। এতে তাদের মাঝে মারা মারি লেগে যায়।

এক পর্যায়ে এতে শামসুল প্রচন্ড আঘাত পেয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। এ সময় তার ছেলে, স্ত্রী ও ভাই গুরুত্বর আহত হয়। স্থানীয়রা তাদের গুরুত্বর অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে হাতীবান্ধা উপজেলা স্থাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।
পরে সেখানকার কর্মরত চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদেরকে রংপুর মেডিকেল কলেজে প্রেরন করেন।

হাতীবান্ধা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার নাইম হাসান নয়ন জানান, হাসপাতালে ৪ জন রোগী এসেছে তার মধ্যে শামসুল নামে একজন মারা গেছে ও বাকি ৩ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসারর জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সানিয়াজান ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড সদস্য বিপ্লবের সাথে কথা হলে তিনি জমি মাপার কথা স্বীকার করে বলেন, কয়েক দিন আগে এ নিয়ে স্থানীয়ভাবে মিমাংসা করে ঐ জমিতে বাশের খুটি পুতে রাখা হয়েছিলো। তবে আজকে কি নিয়ে মারামারি হয়েছে তা এলাকার বাইরে থাকায় এই মহুর্তে বলতে পারব না।

হাতীবান্ধা থানার অফিসারস ইনচার্জ (ওসি) উমর ফারুক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে দ্রুত ওই এলাকায় পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এতে ৪ জন আহত হলে তাদেরকে হাসপাতালে আনার পথে একজন মারা যায়। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

হাসান পিন্টু

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি