LalmohanNews24.Com | logo

১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১লা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

৭০তম প্রতিষ্ঠাবাষির্কী স্মরণীয় করে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ

৭০তম প্রতিষ্ঠাবাষির্কী স্মরণীয় করে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ

‘বঙ্গবন্ধু, স্বাধীনতা ও আওয়ামী লীগ’ এই তিনটি শব্দ ইতিহাসে এক সূত্রে গাঁথা। গৌরবময় ইতিহাসের নানা বাঁক পেরিয়ে আগামীকাল ৭০ বছরে পূর্ণ হতে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া প্রাচীনতম রাজনৈতিক সংগঠন আওয়ামী লীগ। উপমহাদেশের রাজনীতিতে প্রায় সাত দশক ধরে নিজেদের অপরিহার্যতা প্রমাণ করেছে গণতান্ত্রিকভাবে জন্ম নেয়া এ দলটি। আর তাই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজনটাকে স্মরণীয় করে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ।

আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বলেছেন, এবারের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আয়োজনটাকে স্মরণীয় করে রাখতে চাই। এই লক্ষ্যেই কাজ করা হচ্ছে এবং তৃণমূল নেতাকর্মীদের নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত সব কার্যালয় এ দিন নতুন রূপে সাজবে।

বঙ্গবন্ধু-না হলে স্বাধীন বাংলাদেশ হতো না। তাই সব নেতাকর্মীদের বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক ইতিহাস ভালোভাবে জানার আহ্বান জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এক সাংবাদ সম্মেলনে বলেন, সারাদেশে জেলা-উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী মাসজুড়ে পালন করা হবে। ২৩ জুন থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত এ কর্মসূচি পালিত হবে। কর্মসূচির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল, সভা-সমাবেশ, সেমিনার ও র‍্যালি, আলোচনা সভা, প্রচার ও পুস্তিকা প্রকাশ, রচনা প্রতিযোগিতা ও চিত্রাঙ্কন।

তিনি বলেন, ঢাকায় তিন দিনের কর্মসূচি নেয়া হয়েছে। ঢাকায় কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিন ২৩ জুন সকালে বঙ্গবন্ধু ভবন ও কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন। এরপর আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ধানমণ্ডিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানাবেন দলের কেন্দ্রীয় নেতারা।

পরের দিন ২৪ জুন বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনে কেন্দ্রে আলোচনা সভা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে এবং ২৫ জুন বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে বলেও জানান দলের সাধারণ সম্পাদক।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব গণতান্ত্রিকভাবে জন্ম নেয় আওয়ামী লীগ। দলের সেই স্মৃতিবিজড়িত দিন সম্পর্কে দেশের জনগণ যেন ভালোভাবে জানতে পারে সে জন্য মাসজুড়ে কর্মসূচি নেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগ চায় দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শাহে আলম মুরাদ বলেন, প্রতিষ্ঠাবাষির্কীর প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। আমাদের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিটি থানা-ওয়ার্ড নেতারা কার্যক্রম শুরু করেছে। অতীত ঐতিহ্য ধারণ করে দলীয় কার্যালয়সহ বিভিন্ন স্থানে আলোকসজ্জার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

বছরজুড়ে ঐতিহ্যবাহী রোজ গার্ডেন ঘিরে কোনো আয়োজন দেখা না গেলেও ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে উৎসবের আমেজ তৈরি হয়েছে ঐতিহাসিক রোজ গার্ডেনে। নেতাকার্মীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠছে রোজ গার্ডেন।

রোজ গার্ডেনে দায়িত্বরত আনসার (পিসি) শাহিনুর রহমান শাহিন জানান, আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠার স্মৃতিবিজড়িত রোজ গার্ডেনের আশেপাশে বিভিন্ন জায়গায় পোষ্টার, ব্যানারে ভরে গেছে। আলোকসজ্জিতও হতে পারে। এ উপলক্ষে ঢাকা ও আশেপাশের নেতাকর্মীরা রোজ গার্ডেন পরিদর্শনে আসছেন।

তিনি বলেন, এর আগে এখানে এতো মানুষ আসেনি। আগের মতোই নিরাপত্তার কাজে সজাগ রয়েছি। রীতিমতো পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন করেছে সিটি কর্পোরেশনের কর্মীরা।

১৯৪৯ সালের ২৩ জুন পুরনো ঢাকার ঐতিহ্যবাহী রোজ গার্ডেনেই প্রতিষ্ঠিত হয় আওয়ামী লীগ। গত বছর ব্যক্তি মালিকাধীন পুরাকীর্তি হিসেবে সংরক্ষিত ঐতিহাসিক রোজ গার্ডেনের বাড়িটি কিনে নেয় সরকার। এতে ব্যয় হয়, ৩৩১ কোটি ৭০ লাখ দুই হাজার ৯০০ টাকা। হৃষিকেশ দাস নামের এক ধনী ব্যবসায়ী ১৯৩১ সালে প্রায় ২২ বিঘা জমির ওপর ওই বাগানবাড়ি নির্মাণ করেন।

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি