LalmohanNews24.Com | logo

৮ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৩শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

সারাদেশে সড়কে ঝরল ২১ প্রাণ

সারাদেশে সড়কে ঝরল ২১ প্রাণ

সারাদেশের বিভিন্ন স্থানে বৃহস্পতিবার সড়ক দুর্ঘটনায় ২১ জনের প্রাণ গেল। এতে আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক। এর মধ্যে মাদারীপুরে পৃথক ঘটনায় ৯, চট্টগ্রামে বাস-মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে ৮ ও যশোরে পৃথক দুর্ঘটনায় ৪ জন নিহত হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর,

মাদারীপুর: ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের মাদারীপুরের কলাবাড়ি এলাকায় যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে সাতজন নিহত হয়েছেন।০

অপরদিকে, সদর উপজেলার খাগদী ও রাজৈর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৃথক দুটি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুজন নিহত হন।

সকালে টেকেরহাট বাসস্ট্যান্ড থেকে একটি লোকাল বাস ছেড়ে যায়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মাদারীপুর সদর উপজেলার ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের কলাবাড়ি এলাকায় বাসটির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এতে প্রায় ২৫ থেকে ৩০ জন গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠায়। সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোট সাতজনের মৃত্যু হয়।

এছাড়া রাজৈর বাসস্ট্যান্ডে মোটরসাইকেলের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই নাইম বেপারী নামের এক বিকাশ কর্মী নিহত হন। খাগদীতে অপর একটি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আরেকজনের মৃত্যু হয়।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার চুনতি জাঙ্গালিয়ায় বুধবার রাতে বাস ও মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে আটজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ছয়জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের পরিচয় জানা যায়নি।

চট্টগ্রামের অ্যাডিশনাল এসপি (সাতকানিয়া সার্কেল) হাসানুজ্জামান মোল্লা বলেন, রাত সাড়ে ১২ টায় রিলাক্স পরিবহনের একটি বাস ও মাইক্রোবাসের (হাইস) সংঘর্ষ হয়। এতে আটজন নিহত ও অন্তত ছয়জন আহত হয়েছেন। আহত যাত্রীদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

যশোর: যশোরে সকালে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ১৫ জন।

নিহতরা হলেন- যশোরের মণিরামপুর উপজেলার গাবখালি গ্রামের সুভাষ বৈরাগীর ছেলে সুব্রত বৈরাগী, একই উপজেলার কুয়াদা গ্রামের ঋষিকান্ত দাসের স্ত্রী শিউলী দাস ও অজ্ঞাত যুবক।

রূপদিয়া থেকে যশোরে আসছিল লেগুনা। যশোর-খুলনা মহাসড়কের চাউলিয়ায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক লেগুনাটি চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই লেগুনার দুই যাত্রী নিহত হন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক শিশু মারা যায়। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ১৫ জন। আহতদের যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন- স্বপন পাল, মাহমুদ, জাকির হোসেন, সাগর, সিয়াম, সাবিহা খাতুন ও তার ছেলে সাফিন, ইকবাল হোসেন, গনেশ। বাকিদের নাম তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। তবে এর মধ্যে চারজনের অবস্থা গুরুতর।

যশোরের এএসপি সালাউদ্দিন শিকার বলেন, ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে দুর্ঘটনা ঘটেছে। ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়েছে। চালক পালিয়ে গেছে।

একই সময় যশোর শহরের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকায় একটি ট্রাকের ধাক্কায় আলেক নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হন।

যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি সমীর সরকার বলেন, আলেক সরকার মোটরসাইকেলে করে বাড়ি থেকে শহরে আসছিলেন। এ সময় শহরের শঙ্করপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের পাশে একটি ট্রাক তার মোটরসাইকেলে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি