LalmohanNews24.Com | logo

৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং

সাংবাদিকতার আড়ালে ভয়ঙ্কর অপরাধী ওরা!

সাংবাদিকতার আড়ালে ভয়ঙ্কর অপরাধী ওরা!

নারায়ণগঞ্জে সাংবাদিক পরিচয়ের আড়ালে ভয়ঙ্কর অপরাধীর সংখ্যা বাড়ছে। গত দুই মাসে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে ২৬ জন ভুয়া সাংবাদিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ও র‌্যাব।

যারা গ্রেফতার হয়েছেন তারা অপরাধ আড়াল করতে কৌশল হিসেবে নামসর্বস্ব আবার কেউ ভূঁইফোড় অনলাইন পত্রিকার আইডি কার্ড সংগ্রহ করে সাংবাদিক পরিচয়ে চালাচ্ছেন অপকর্ম।

এর আগে ২৭ জুন সোনারগাঁও থেকে মো. হোসেন নামের এক ডাকাত গ্রেফতার হয়। তিনি দিনে সাংবাদিক পরিচয়ে ঘুরে বেড়ান আর রাতে ডাকাতি করাই ছিল তার পেশা। আবার কারো রয়েছে সরকারি দলের সহযোগী সংগঠনের পদবি।

সোনারগাঁও থানার এসআই আবুল কালাম আজাদ জানান, মো. হোসেন পেশাদার ডাকাত। তিনি ডাকাতির পাশাপাশি সাংবাদিকতা পেশা বেছে নেয়, যাতে তাকে কেউ অপরাধী বুঝতে না পারে। মো. হোসেনের মতো আরো ২৫ জন ভুয়া সাংবাদিক গ্রেফতার হয় জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে।

গত ৩০ জুন নারায়ণগঞ্জে নয় ভুয়া সাংবাদিককে গ্রেফতার করে পুলিশ। ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন জানান, ওই দিন বিকেলে ফতুল্লায় গ্যাস লাইন অবৈধ বলে চাঁদাবাজি করতে গেলে পাঁচ ভুয়া সাংবাদিককে রঘুনাথপুর জোড়াপুল এলাকা থেকে আটক করে পুলিশ।

আটকরা হলেন- ফতুল্লার পঞ্চবটি চাঁদনী হাউজিংয়ের সাইফুল ইসলাম, বন্দর উপজেলার রুহুল আমীন, নবীগঞ্জের ফয়সাল, ফতুল্লার ইসদাইর বুড়ির দোকান এলাকার শরীফ মো. সিদ্দিকী ওরফে আপন, বাবু সওদাগর। তাদের কাছ থেকে ‘সাপ্তাহিক দুর্নীতির রিপোর্ট’ নামে একটি পত্রিকার আইডি কার্ড ও কয়েকটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে পুলিশ। এরমধ্যে বাবু সওদাগর ফতল্লা থানা তাঁতী লীগের সভাপতি বলে জানা গেছে। তাঁতি লীগের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ব্যানার নিয়ে মিছিলে অংশ নিতে তাকে দেখা গেছে।

একই দিনে নারায়ণগঞ্জ এসপির পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দৈনিক ‘গণজাগরণ ও অপরাধের খোঁজে’ পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি (নি.) মো. আজিজুল হকের কাছে প্রতি মাসে ২০ হাজার টাকা করে চাঁদা দাবি করে চার ভুয়া সাংবাদিক। এ পুলিশ কর্মকর্তার সন্দেহ হলে তাদের পত্রিকার কাগজপত্রসহ পরিচয়পত্র দেখাতে বললে তারা কোনো কিছুই দেখাতে পারেননি।

গ্রেফতাররা হলেন- মো, সেলিম নিজামী, মো. শফিকুল ইসলাম, মো. ইউসুফ ও মাসুদ মিয়া।

গত ২৪ জুন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় আইসিটি আইনের মামলায় ভুয়া সাংবাদিক সাদ্দাম হোসেন শুভকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ১০ জুন সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে গাড়িতে করে ফেনসিডিল পাচারের অভিযোগে আড়াইহাজারের শামিম মিয়াসহ চার ভুয়া সাংবাদিককে গ্রেফতার করে পুলিশ। ২৫ এপ্রিল রূপগঞ্জে প্রতারণা ও চাঁদাবাজির অভিযোগে ভুয়া সাংবাদিক দম্পতি ও তাদের সহযোগীকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১-এর সদস্যরা। তারা হলেন- রাসেল হাওলাদার, মানিক মিয়া, আছমা বেগম।

২১ মে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ সোনারগাঁও ও রূপগঞ্জ থেকে চার ভুয়া সাংবাদিককে গ্রেফতার করে। তারা হলেন- বোরহান হাওলাদার জসিম, সাইফুল ইসলাম, আবুল কালাম, নাসিরউদ্দিন, আব্দুল লতিফ সিদ্দিক। ২১ মে শহরের চাষাঢ়া এলাকায় এক দম্পতিকে ব্ল্যাকমেইলিং করার অভিযোগে তিন ভুয়া সাংবাদিককে গ্রেফতার করে র‌্যাব। তারা হলেন- রাকিব, শারমিন ও সাগর।

নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুমের মতে, যারা সাংবাদিকতার ব্যানারে অপসাংবাদিকতা করে বেড়ায় তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবদুস সালামের মতে, পত্রিকার মালিকদের পেশাদারিত্ব বজায় রাখতে হবে।

নারায়ণগঞ্জ ডিসি মো. জসিম উদ্দিন বলেন, অপসাংবাদিকতার বিষয়ে কোনো লিখিত অভিযোগ এলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি