LalmohanNews24.Com | logo

৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৬ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সত্যিই এ যেন এক বিস্ময়!

সত্যিই এ যেন এক বিস্ময়!

বিস্ময়! তবে এতটা বিস্ময় অপেক্ষা করছিল তা বুঝতে পারেননি ৩০ বছর বয়সী মা লিন্ডসে অলটিস। লেবার রুমে তিনি জন্ম দিলেন একটি কন্যা সন্তান। নাম আডা মাজে। ব্যাস, তিনি ও তার স্বামী ওয়েসলি (৩৩) ভেবেছিলেন এখানেই শেষ। প্রসব যন্ত্রণা থেকে বুঝি মুক্তি পাচ্ছেন তার স্ত্রী লিন্ডসে। কিন্তু না। ঘটলো তার উল্টো। তার প্রসব যন্ত্রণা রয়েই গেল।

মাত্র দু’মিনিটের মধ্যে তিনি প্রসব করলেন আরো একটি কন্যা। নাম রাখলেন বিলি জুন। বিস্ময়ের ব্যাপার এটাই যে, তারা বিলি জুনের জন্মের আগে পর্যন্ত জানতেন না জমজ সন্তানের পিতামাতা হতে যাচ্ছেন। ফলে মহা বিস্ময়ের সৃষ্টি হয় লেবার রুম। আনন্দে বাকহারা হয়ে যান লিন্ডসে আর তার স্বামী ওয়েসলি। এ ঘটনাটি যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিনের। ঘটেছে ২০১৯ সালে। কিন্তু বিলম্বে এ খবর প্রকাশ হয়েছে এখন। এ নিয়ে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে লন্ডনের অনলাইন ডেইলি মেইল, দ্য সান, মেট্রো সহ বিভিন্ন মিডিয়া। এমনিতেই সন্তানের পিতামাতা হওয়া প্রতিটি মা-বাবার জন্য পরম পাওয়া। এর চেয়ে উত্তম উপহার সৃষ্টিকর্তার তরফ থেকে দুনিয়ায় হতে পারে না। লিন্ডসে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর তাই তাদের সংসারে হাসিখুশিতে ভরে ওঠে। কিন্তু তারা কখনো জানতে পারেন না, লিন্ডসের গর্ভে রয়েছে জমজ সন্তান।

২০১৯ সালের জুলাই মাসের কোন একদিনের কথা। লেবার রুমে লিন্ডসে এবং ওয়েসলির হাতে উপহার তুলে দেয়া হলো কন্যা আডা মাজে’কে। খুশিতে তারা তখন আটখানা।। কিন্তু সেবায় রত নার্স ও অন্যরা তখন বুঝে গেছেন লিন্ডসে আরো একটি সন্তান জন্ম দিতে চলেছেন।  এর ঠিক দুই মিনিট পরে ঠিকই আরো একটি কন্যা সন্তান ভূমিষ্ঠ করলেন লিন্ডসে। এ খবরে যেন লেবার রুমটা আনন্দের ফল্গুধারায় ভরে গেল। কখনো জানতে পারেন নি লিন্ডসে, ওয়েসলি দম্পতি যে, তারা জমজ সন্তানের পিতামাতা হতে যাচ্ছেন, তাদেরকে উপহার দেয়া হলো সেই জমজ সন্তান। খুশি আর দেখে কে। লেবার রুমের বিশেষ বাথটাবে শায়িত অবস্থায় দুই কন্যাকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন লিন্ডসে। মুখে প্রসারিত হাসি।

সন্তান জন্ম দেয়ার আগে কমপক্ষে দু’বার তার আলট্রাসাউন্ড করা হয়েছিল। প্রথমদিকে একবার। দ্বিতীয়বার শেষের দিকে। বেশির ভাগ পিতামাতাই এমনটা করে থাকেন। তারা নিশ্চিত হতে চান যে, অনাগত সন্তান ভাল আছে, সুস্থ আছে। লিন্ডসেও তা করিয়েছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্য হলো, তিনি জানতে পারেন নি একবারও যে, তার পেটে দুটি সন্তান বড় হচ্ছে। লিন্ডসে এভাবে অলৌকিকভাবে দুটি সন্তান জন্ম দিয়ে পরম শান্তি পেয়েছেন। তবে তার একটিই বেদনা আছে। তা হলো, যখন প্রথম দ্বিতীয় সন্তান তাদের কাছে দেয়া হয়েছিল, তখন তার স্বামীর মুখের অবয়ব, ভাবমূর্তি কেমন হয়েছিল, সেটা তিনি মিস করেছেন। তার স্বামীর সেই মুখের তখনকার ছবি তিনি খুব মিস করেন।

লিন্ডসে বলেন, আডা অনেক ছোট হয়েছিল জন্মের সময়। ফলে তার ওজন নিয়ে আমার সন্দেহ হয়েছিল। আমার প্রথম সন্তান একটি ছেলে, জাঙ্গো। ফলে আডা কেন এত ছোট হয়ে জন্মেছে তা নিয়ে আমার মধ্যে সংশয় কাজ করছিল। জন্মের সময় জাঙ্গোর ওজন ছিল ৯ পাউন্ড। আমাকে যখন বলা হলো, আমি আরো একটি সন্তান প্রসব করতে চলেছি, তখনকার আনন্দের ভাষা প্রকাশ করার মতো কোনো শব্দ নেই আমার কাছে। নার্সরা আমাকে অবহিত করলে বিষয়টি। আরেকটি সন্তান জন্ম দিতে চলেছি, বিষয়টি আমি বুঝতে পারলাম। নার্সরা ভাবলেন এটা সন্তান জন্ম দেয়ার পরে বিশেষ পানির থলে। কিন্তু না। পরক্ষণেই দেখা গেল আমি দ্বিতীয় সন্তান জন্ম দিচ্ছি। হ্যাঁ, মাত্র দুই মিনিট পরে সে পৃথিবীর মুখ দেখে।

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি