LalmohanNews24.Com | logo

৮ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

লালমোহনে বিদ্যালয় রেখে স্ত্রী সন্তানের সাথে ভারতে থাকেন তিনি!

লালমোহনে বিদ্যালয় রেখে স্ত্রী সন্তানের সাথে ভারতে থাকেন তিনি!

ভোলার লালমোহনে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষা ভাতার নামে অর্ধ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ ও স্কুল রেখে অবৈধভাবে বছরে ৩-৪ বার ভারত গিয়ে অবস্থান করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায়, উপজেলার চরভূতার মুগরীয়া বাজারের দক্ষিণ চর মিয়াজী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শংকর মজুমদার স্ব- পরিবারে পার্শবর্তী দেশ ভারতে অবস্থান করেন।

১ ছেলে সুবেন্দ্র মজুমদার, ১ মেয়ে শিল্পি মজুমদার ও স্ত্রী ঝর্না রানী ২০১৩ সাল থেকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার কুকশিমলা গ্রামে বসবাস করে। প্রধান শিক্ষক শংকর মজুমদার বিদ্যালয়ের ক্লাস রেখে প্রতিবছর ৩-৪ বার ভারতে গিয়ে মাসের পর মাস সেখানে পরিবারের সাথে অবস্থান করেন।

ছুটি বহির্ভূত ও সহকারী শিক্ষক দিয়ে প্রধান শিক্ষকের নামে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর দেওয়া এবং উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া দেশ ত্যাগ মর্মে বিদ্যালয়ের সভাপতি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর প্রধান শিক্ষকের নামে অভিযোগ পত্র দায়ের করেন।

এব্যাপারে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মাহমুদুল হক বলেন, প্রধান শিক্ষক বিভিন্ন ছোট খাট ছুটি আসলেই ছুটির আগে পিছে অনেক দিন অন্য একজন সহকারী শিক্ষক দিয়ে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করিয়ে ভারতে অবস্থান করে। তাছাড়াও তার ছেলে মেয়ে প্রায় ৬/৭ বছর ভারতে অবস্থান করলেও ছেলে মেয়েদের নামে শিক্ষাভাতা ভাতা বাবৎ প্রতি মাসে ১ হাজার টাকা করে অতিরিক্ত বেতন উত্তোলন করে, যা সম্পুর্ন অবৈধ। আমি বার বার তাকে এসকল বন্ধ করতে বললেও সে আমাকে অগ্রাহ্য করে। এসকল অবৈধ কাজ করায় আমি প্রায় ১৫ দিন পূর্বে তার বিরুদ্ধে উপজেলা শিক্ষা অফিসারে বরাবর অভিযোগ পত্র দায়ের করি।

অভিযোগের ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক শংকর মজুমদার বলেন, আমার ছেলে মেয়ে ২০১৩ সাল থেকে ভারতে পড়াশুনা করে এবং আমার স্ত্রীও সেখানে থাকে বিধায় আমাকে ছুটি পেলে ভারতে যেতে হয় , ভারতে যেতে কারো অনুমতি নিতে হয়না। শিক্ষা ভাতার ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক আরো বলেন, শিক্ষাভাতা পেতে ২০১৩ সালের পর আমি কোন প্রত্যায়ন পত্র জমা দেইনি।

ঘটনার ব্যাপারে উপজেলা ভারপ্রাপ্ত প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আশরাফ উদ্দিন বলেন, আমেরিকা থেকে পড়াশুনা করলেও সে শিক্ষাভাতা পাবে। তবে ওই শিক্ষক ফাঁকি দিয়ে ভারতে যাওয়ার বিষয়ে কিছু জানি না। এ সংক্রান্ত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

লালমোহননিউজ/ হাসান পিন্টু

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি