LalmohanNews24.Com | logo

১৫ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ৩০শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

লালমোহনে নেশাদ্রব্য খাইয়ে ঘরের মালামাল লুটে নিলো চোর চক্র

বিজ্ঞাপন

লালমোহনে নেশাদ্রব্য খাইয়ে ঘরের মালামাল লুটে নিলো চোর চক্র

জাহিদুল ইসলাম দুলাল, ধলিগৌরনগর থেকেঃ ভোলার লালমোহনের ধলীগৌরনগর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ( নুরুল্লাহ বাজার পিয়ন বাড়ী) তছির মাস্টার বাড়ীতে শনিবার রাতে তছির মাস্টারের ঘরের সবাইকে নেশাজাতীয় দ্রব্য খাইয়ে নগদ প্রায় দেড়লক্ষ টাকা, ৮ ভড়ি স্বর্ণ, জরুরী কাগজপত্র, দলিল, নিয়োগ ও যোগদানপত্র সহ সব লুটেনিল চোরের দল।

জানাযায় শনিবার রাতে তছির মাস্টার (৫৫) তার স্ত্রী মাছুমা বেগম (৫০) এবং ছেলে মেহেদী হাসান (১২) প্রতিদিনের মত রাতে খাবার খেয়ে ঘুমিয়েছিল। কিন্তু রবিবার সকালে তছির মিয়ার শাশুড়ী এসে দেখে ঘর খোলা, ঘরের বিতর আলমারী খোলা, ঘরের কাপড় চোপড় সব এলোমেলো, কাগজপত্র এলোমেলো অবস্থায় পড়ে আছে।

এ অবস্থায় তিনি ঘরের ভিতরে তার মেয়ে ও মেয়ের জামায় কে ডাকাডাকি করলে তারা কোন রাও শব্দ করছেনা দেখে তিনি পাশের বাসার লোকজনকে ডাকেন। পাশের বাসর লোকজন এসে তাদেরকে ডাকাডাকি করলেও তারা কোন শব্দ করলেন না। লোকজন তখন দেখেন বাসর পিছনে টিন কেটে চোরেরা ভিতরে প্রবেশ করে ঘরের সব লুট করে নিয়ে গেছে। খবর পেয়ে তছির মাস্টারের ভাতিজা খোকন মাস্টার এসে তাদের তিনজনকে লালমোহন হাসপাতালে নিয়ে জরুরী বিভাগে ভর্তি করেন।

রবিবার বিকালে খোকন মাস্টার বলেন আমি সকালে বাড়ী গিয়ে তাদেরকে তাড়াতাড়ি করে হাসপাতালে নিয়ে আসি। সকালে চাচা, চাচী ও চাচাতো ভাই এর অবস্থা খুবই খারাপ ছিল। বিকালের দিকে ডাক্তার বলেছে এখন তারা সংকামুক্ত। আগামী কালকে তাদেরকে বাড়ী নিয়ে যেতে পারব। গতকাল সন্ধ্যায় লালমোহন হাসপাতালের বেডে এই প্রতিবেদকের সাথে কথা হয় তছির মাস্টারের।

তিনি বলেন কি হলো বুঝতে পারলাম না। আমি গত কাল রাতে ঘুমিয়ে ছিলাম আমার নিজের বাসায় এবং ঘুম থেকে জেগে দেখি হাসপাতালের বেডে শুয়ে আছি। মাথা এখনও সোজা করে উঠাইতে পারছি না। চেরেরা আমার সব নিয়ে গেছে। তছির মাস্টারের ভাতিজা খোকন মাষ্টার জানান চাচা মেঘনা লাইফ ইনস্যুরেন্স এর ব্রাঞ্চ ম্যানেজার। ইনসুরেন্স এর প্রিমিয়াম ও ২য় কিস্তির টাকা তার কাছে জমা ছিল প্রায় দেড় লক্ষ টাকার মত।

শুক্রবার ও শনিবার ব্যাংক বন্ধ থাকার কারনে ব্যাংকে জমা না দিয়ে বাসায় রেখেছিলো রবিবারে ব্যাংকে জমা দিব বলে। কিন্তু চোরের দল সব টাকা লুটে নিল। আমার চাচী এফডবিøউএ তে চাকুরী করে তার লকারে ছিল প্রায় ২৫ হাজার টাকার মত সেটাকাও নিয়ে গেছে। তাদের ৩ টি মোবাইল ছিল তা নিয়ে গেছে এবং বেশকিছু কাগজপত্র, দলিল সহ ঘরের সকল মূল্যবান মালামাল চোরেরা নিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে মামলা করার প্রস্তুুতি চলছে।

 

হাসান পিন্টু 

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি