LalmohanNews24.Com | logo

৩রা পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং

ভোলা-৪: আলমের চমকে উজ্জীবিত বিএনপি

ভোলা-৪: আলমের চমকে উজ্জীবিত বিএনপি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সারাদেশে বিএনপি নেতাকর্মীরা গায়েবী মামলায় গ্রেফতার হয়রানি হয়েও উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্যই নির্বাচনে অংশগ্রহনের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। মামলা,গ্রেফতার আর হয়রানিতে পিছিয়ে নেই ভোলা-৪ আসনের চরফ্যাশন মনপুরার বিএনপি নেতাকর্মীরা।

সম্প্রতি হাইকোর্ট হতে সাড়ে তিনশত বিএনপি নেতাকর্মী গায়েবী মামলায় আগাম জামিন নিয়েছেন।গ্রেফতার হয়রানির পরেও নেতা কর্মীদের নতুনভাবে উজ্জীবিত করে চমক সৃস্টি করেছেন এ আসনের তিনবারের নির্বাচিত সাংসদ ও ঢাকসু এজিএস ৯০ এর গনঅভ্যুথানের মহানায়ক মৃত্যুঞ্জয়ী জননেতা আলহাজ্ব নাজিম উদ্দীন আলম।

তিনি মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার উদ্দেশ্য গত ২৭শে ডিসেম্বর নিজ নির্বাচনী এলাকায় আসলে লাখো জনতা তাকে বরন করে নেন।তাকে বরন করতে চরফ্যাশনের প্রতিটি ইউনিয়ন হতে বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের হাজার হাজার নেতা কর্মী ভোর হতেই টিবি স্কুল গেটে জমায়েত হতে থাকে।এক পর্যায়ে তা জনসমুদ্রে রুপ নেয়।লোকে লোকারন্য হয়ে যায় পুরো চরফ্যাশন পৌর এলাকা।

সকাল এগারটার সময় আলমের গাড়ি বহর চরফ্যাশন এসে পৌছলে চতুর্দিক হতে লাখো জনতার আলম ভাই,আলম ভাই স্লোগানে প্রকম্পিত হতে থাকে চরফ্যাশন উপজেলা।এ যেন এক অভুতপুর্ব দৃশ্য,অবিস্মরণীয় মুহুর্ত!লাখো জনতার বাধঁ ভাঙ্গা উচ্ছাস আর নির্মল ভালবাসার এক অনন্য দৃস্টান্ত দেখল চরফ্যাশনবাসী। নাজিম উদ্দীন আলমকে বরন করতে লাখো জনতার স্বতঃস্ফুর্ত উপস্থিতি শুধু ভোলাবাসীই প্রত্যক্ষ করেনি,তা চমক সৃস্টি করেছে পুরো দক্ষিনাঞ্চলেই।

বিএনপি নেতা কর্মীরা জানান আলম ভাই কর্মীবান্ধব নেতা হিসেবে বিগত সময়ে দলীয় নেতা কর্মীদের স্নেহ ভালবাসা দিয়ে মার্জিত ব্যবহার মাধ্যমে তাদের হৃদয় জয় করেছেন। শত দুঃখ কস্টেও তাদের অভিবাবকের মত আগলে রেখেছেন। সব সময় খোজঁ খবর নিয়েছেন। বিএনপির নেতা কর্মীদের এ বিশাল উপস্থিতিই তার প্রতি নেতা কর্মীদের গভীর ভালবাসার পরিচয় বহন করে।তার আগমনের দিন জনতার এ বিশাল উপস্থিতি নতুন করে চিন্তার ভাজঁ পড়েছে আওয়ামী নেতাকর্মীদের মনে।

জ্যাকবের উন্নয়নের কথা বলে নির্বাচনী বৈতরনী পার হওয়ার যে স্বপ্ন তারা দেখেছিলেন তা সহজ হবেনা বলে মনে করছেন নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনেক আ’লীগ নেতা কর্মী। সাধারন ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা যায়, উন্নয়ন সরকারের একটি চলমান প্রক্রিয়া। স্থানীয় এমপি সরকারী দলে থাকলে এলাকার উন্নয়ন হবে এটা স্বাভাবিক।তবে এবার তারা সরকারের উন্নয়ন দেখে ভোট দিবেন না। দেশের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষন করে দেখে শুনে ভোট দিবেন।

বিরোধী দলীয় নেতা কর্মীদের উপর সরকারের দমন পীড়ন, দেশের আর্থিক খাতে লুটপাট,বিগত ৫ই জানুয়ারীর সংসদ নির্বাচনসহ স্থানীয় সরকার নির্বাচনগুলোতে জনগনের ভোটাধিকার হরন জনমনে বিরুপ প্রভাব ফেলেছে। জনগন ভোট দিতে চায়,ভোটের সুষ্ঠু পরিবেশ পেলে জনগন ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারলে সারা দেশের মত চরফ্যাশন মনপুরাতেও পরিবর্তন হবে বলে মনে করছেন সাধারন ভোটাররা।

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি