LalmohanNews24.Com | logo

২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ৮ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভোলায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড॥ শত কোটি টাকার ক্ষতি

ভোলায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড॥ শত কোটি টাকার ক্ষতি

এম শরীফ আহমেদ, ভোলা থেকেঃ গভীর রাত ঘড়িতে তখন পোনে একটা বাজে।(২৮ এপ্রিল) শনিবার ভোররাত। বাজারে লোক নেই বললেই চলে।কেউ ঘুমিয়ে ছিলেন,কেউবা ঘুমের প্রস্ততি নিচ্ছেন,আর কেউবা ফেইজবুকে ব্যস্ত ছিলেন।

এমন সসময়,স্থানীয় কিছু লোকজন ভোলা শহরের মনিহারী পট্টির একটি দোকানের সামনের অংশ ধোঁয়া উড়তে দেখে তাৎক্ষনিক তারা সদরের ফায়ার সার্ভিসকে ফোন করেন এবং মসজিদের মাইকে আগুন নিভানোর জন্য সকলে আহ্বান জানায়। কিছুক্ষনের মধ্যে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে আশপাশের দোকানগুলোতে।

এদিকে মসজিদের মাইকের শব্দ শুনে, শহরের শত শত মানুষ ঘুম থেকে উঠে ছুটে আসে আগুন নিয়ন্ত্রনের জন্য।ঘরে বসে ছিলনা নারীরাও।গৃহকর্তারর সাথে সাথে দোকানের মালামাল সরানো ব্যস্ত হয়ে পড়েন তারা।প্রথম পর্যায়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা চালায় ভোলা সদরের  দুটি ইউনিট।কিন্তু ভোলার দোকানের পাশের খালে পর্যাপ্ত পানি না থাকায় তাদের কাজ বাধাগ্রস্থ হয়। আগুনের লেলিহান শিখা দ্রুত চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে।

জানা যায়,শহরের ব্যবসায়ীক প্রাণকেন্দ্র মনিহারী পট্টির বিভিন্ন দোকানে রং,স্প্রীড বিভিন্ন ধরনের কেমিক্যাল থাকায় আগুন নিয়ন্ত্রনের বাইরে চলে যায়। পর্যায়ক্রমে ভোলার অন্যান্য উপজেলার ফায়ার সার্ভিসের আরও ৬টি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নেভানোর  চেষ্টা করে।পাশের খালে পর্যাপ্ত পানি না থাকায় লোকজন ভোলা কোর্ট মসজিদ পুকুরের পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা চালায়। ফায়ার সার্ভিসের সাথে ভোলা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মোকতার হোসেনের নেৃতত্বে পুলিশ বাহিনীর সদস্য,স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক সহ সাধারন জনগন আগুন নেভানোর প্রাণপণ চেষ্টা চালায়।এতে প্রায় ৪  ঘন্টার চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে।

এর মধ্যেই আগুনের লেলিহান শিখায় মনিহারীপট্টি, চকবাজার, খালপাড়ার সড়কের শতাধিক দোকান ভস্মিভূত হয়। এসময় আংশিক ক্ষতিগ্রস্থ হয় শতাধিক দোকানঘর। এতে প্রায় শত কোটি টাকা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থরা আনুমানিক ধারণা করেন।আগুন নিয়ন্ত্রন আনতে গিয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্য সহ (১০-১২)জন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে আগুনের সূত্রপাত কিভাবে হয়েছে তা সুনির্দিষ্টভাবে জানা যায়নি। অনেকের ধারনা বৈদ্যুতিক সর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে।খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে আসনে  জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মচারীরা।

পৌর শহরের বাসিন্দা আকলিমা (টুকু) বলেন,এমন অগ্নিকান্ডের ঘটনা আমি আর ভোলায় দেখিনি। এ ঘটনাটি আমার ভয়াবহ স্মরণীয় দিন হিসের চিরদিন মনে থাকবে।

ভোলা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মোকতার হোসেন জানান,অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে আমাদের পুলিশ সদস্যদের নিয়ে ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে চেষ্টা করি।

ভোলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম সিদ্দিক বলেন, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক আমরা ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনের কার্যক্রম তদারকি করছি।পরে ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা করে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সাধ্যমত সহায়তা করা হবে বলেও তিনি জানান।

হাসান পিন্টু

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি