LalmohanNews24.Com | logo

৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৪ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভোলায় ভন্ড তান্ত্রিকের আজব কান্ড! স্কুল ছাত্রকে মেয়ে সাজিয়ে বলিদানের চেষ্টা

ভোলায় ভন্ড তান্ত্রিকের আজব কান্ড! স্কুল ছাত্রকে মেয়ে সাজিয়ে বলিদানের চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার  কাচিয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড ফুল কাচিয়া গ্রামের শাহে আলমের ছেলে অষ্টম শ্রেণীর স্কুল পড়ুয়া ছাত্রকে তন্ত্র-মন্ত্র সাধনের জন্য মেয়ে সাজিয়ে বলিদানের চেষ্টা করেন একই এলাকার শাহ আলম ও তার স্ত্রী শামসুন নাহার এবং মেয়ে ফাতেমা বেগম।

সরজমিনে গিয়ে জানাযায়, বোরহানউদ্দিন ডিটি এম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের  ৮ম শ্রেণীর ছাত্র বেল্লাল (১৪) এর একই এলাকার শাহ আলমের ছেলে আল আমিনের সাথে বন্ধুত্বের সম্পর্ক হয়। তারই ধারা বাহিকতায় বেল্লাল প্রায়ই আল আমিনের বাসায় আসা যাওয়া করতেন।

প্রায় এক মাস পূর্বে আল আমিনের মা ও বাবা বেল্লাল কে জানান, তারা স্বপ্নে দেখেছেন তাদের ঘরে ভিতর মাটির নিচে অনেক স্বর্ণ মুদ্রা রয়েছে এবং বেল্লাল যদি প্রতিদিন সন্ধ্যায় তাদের ঘরে এসে মোম ও আগর বাতি জ্বালায় তাহলে তারা মাটির নিচের ওই গুপ্তধন বের করতে পারবেন এবং তাদের কথায় কাজ করলে বেল্লালকেও ওই গুপ্তধনের সমান ভাগ দিবেন। এই কথায় রাজি হয়ে বেল্লাল প্রতিদিন সন্ধ্যায় আল আমিনদের বাসায় গিয়ে মোম ও আগর বাতি জ্বালাতে থাকেন। ২৯ জানুয়ারী সোমবার এক মাস পূর্ন হওয়ায় আল আমিনের মা শামসুন নাহার বাবা শাহ আলম বেল্লালকে বলেন,আজ সারারাত তাদের বাসায় বেল্লালকে থাকতে হবে এবং রাতে তাকে সাজিয়ে রাত ১২টার পরে নদীর ধারে গোসল দিতে হবে ।

বেল্লাল তাদের কথামত বোনের বাসায় যাওয়ার নাম করে তান্ত্রিক  শাহ আলমের বাসায় গেলে তাকে মহিলাদের বিয়ের শাড়ী, গহনা পরিয়ে সাজিয়ে নদীর পারে গোসল করানোর নামে বলিদানের জন্য প্রস্তুত করেন। রাত প্রায় ১১ ঘটিকায় বেল্লালের বাবা বাসায় এসে ছেলেকে বাসায় দেখতে না পেয়ে স্ত্রীকে ছেলের কথা জিজ্ঞাসা করলে বোনের বাসায় বেড়াতে গেছেন বলে জানান। একথা শুনে বেল্লালের বাবা তার মেয়ের বাড়ী ফোন করে বেল্লালের সেখানে যাওয়ার খবর জানতে চাইলে বেল্লাল সেখানে জায়নি বলে জানান। পরে বাড়ীর লোকজন সহ সবাই আশে পাশে খোজ খবর নেওয়া শুরু করে আল অমিনের বাড়ীতে আলো দেখে খুজতে যায়।

ঘটনা বেগতিক দেখে তান্ত্রিক শাহ অলম ও তার পরিবারের লেকেরা বেল্লালকে শাড়ী, চুড়ি ও গহনা পরা অবস্থায় ঘরের পাশে অন্ধকারে লুকিয়ে রাখেন। বেল্লালকে লুকানের সময় তার বাবা কিছু নরা চরার শব্দ পেয়ে চুপচাপ তাদের ঘরের পাশে দাড়িয়ে থাকেন। কিছুক্ষন পর শাড়ী,গহনা পরা অবস্থায় তার ছেলেকে হাতে নাতে ধরে ফেলেন। পরে ডাক চিৎকার দিলে এলাকার লোকজন এসে পরিস্থিতি শান্ত করেন।  বেল্লাল জানান, একমাস পর্বে তারা আমাকে পানির সাথে মিশিয়ে কিছু একটা খাইয়ে দিয়েছেন এবং বলেছে তাদের সকল কথা না মেনে নিলে আমার ক্ষতি হবে।

এঘটনায় ওই এলাকা তোলপার বিরাজ করছে এবং স্থানীয় জনসাধারন বিচার দাবী করে বিক্ষেভ প্রদর্শন করেন।  এঘটনায় তান্ত্রিক শাহ আলমের পরিবার পলাতক রয়েছেন। এব্যপারে বোরহানউদ্দিন ভারপ্রপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অসিম কুমার সিকদার জানান, অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

হাসান পিন্টু

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি