LalmohanNews24.Com | logo

৯ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২১শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং

ভোলায় জালের ফাসেঁর আকার নির্ধারন বিষয়ক কর্মশালা

ভোলায় জালের ফাসেঁর আকার নির্ধারন বিষয়ক কর্মশালা

জেলেদের জালের ফাঁসের আকার নির্ধারন বিষয়ে স্টেকহোল্ডারদের নিয়ে ভোলায় পরামর্শমূলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) সকালে কোস্ট ট্রাস্টের ইকোফিশ প্রকল্পের আয়োজনে ক্রিস্টাল ইন হোটেল কনফারেন্স রুমে এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
ভোলা কোস্ট ট্রাস্টের সহ-সমন্বয়কারী সোহেল মাহমুদের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ভোলা সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইউনুছ। জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আজাহারুল ইসলাম সভাপত্বিতে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন-মৎস গবেষক ড.জলিলুর রহমান,সিনিয়র মৎস কর্মকর্তা মো: নাসির উদ্দিন, ওয়াল্ডফিশ বাংলাদেশের রিসার্স এ্যাসোসিয়াড অংকুর মোহাম্মদ ইমতিয়াজ,ভোলার খামার ব্যবস্থাপক মোঃ জাকির হোসেন, পূর্ব ইলিশা সদর নৌ থানা অফিসার ইনচার্জ সুজন চন্দ্র পাল,ভোলা কেন্দ্রীয় মৎসজীবি সমবায় সমিতি লি: সভাপতি মো: নুরুল ইসলাম,সম্পাদক মো: আবুল কাসেম মাঝি,মাছরাঙ্গা টিভির সাংবাদিক হাসিবুর রহমান,প্রথম আলো প্রতিনিধি নেয়ামতউল্ল্যাহ, উপজেলা মৎসজীবী সমিতির সম্পাদক মো: এরশাদ,আবুল বাশার মাঝি সহ আরো অনেকেই।
এসময় বক্তারা বলেন,বর্তমানে জেলেদের ব্যাবহার করা জাল সাড়ে চার সেন্টিমিটার থেকে ৬ থেকে সাড়ে সাত সিন্টিমিটার জাল ব্যাবহার করার সুপারিশ করে জেলেদের জাল ব্যাবহার আইন সংসোধন করার কথা বলেন। তা নাহলে ঝাটকা মাছ রক্ষা করা কঠিন হয়ে পরবে।আজকের ঝাটকা ইলিশ আগামীদিনের বড় ইলিশ। এই বড় ইলিশ পেতে হলে ছোট জাল ব্যাবহার করা বন্ধ করতে হবে।
এসময় বক্তারা বলেন, এক শ্রেনীর প্রভাবশালীরা অবৈধ নিষিদ্ধ মশারী জাল, চরঘেরাজাল,ছোট খুডা নেট,খরচীজাল,পিটানো জাল,বিন্দিজাল সহ আরো অনেক অবৈধ জাল ব্যাহার করে মাছের বংশ ধ্বংস করে দিচ্ছে। তাই এই অবৈধ জালের ব্যাবহার বন্ধ করার পাশাপাশি মাছ ধররা বন্ধের সময়ে বিকল্প কর্মস্থান সৃষ্টি করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানায়।

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি