LalmohanNews24.Com | logo

১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভোলায় জমি বিরোধে প্রাণ হারালেন স্কুল শিক্ষক॥ স্বজনদের অভিযোগ পিটিয়ে হত্যা ॥ আটক-১

ভোলায় জমি বিরোধে প্রাণ হারালেন স্কুল শিক্ষক॥ স্বজনদের অভিযোগ পিটিয়ে হত্যা ॥ আটক-১

ভোলা প্রতিনিধি ॥ ভোলায় জমি-জমা বিরোধে প্রাণ হারালেন এক স্কুল শিক্ষক। সোমবার দুপুরে ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যু বরণ করেন। নিহত স্কুল শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান (৫৫) সদর উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের মৃত্যু মতিউর রহমান সিকদারের ছেলে এবং ৭৩ নং পূর্ব উত্তর দিঘলদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও তিন সন্তানের জনক। এ ঘটনায় এক জনকে আটক করেছে ভোলা সদর থানা পুলিশের একটি টিম।

নিহতের পরিবারের স্বজনরা সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ একই বাড়ীর মোতাহার সিকদারের ছেলে সামছুদ্দিন সিকদার (৫০) ছাত্তার সিকদারের ছেলে কাদের (৪৫), লোকমান, জামাল, আক্তার গংদের সাথে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। উভয় গ্রুপের মধ্যে একাধিকবার সমঝোতার চেষ্টা করার পরও কোন সুরাহা হয়নি। বিরোধীয় জমি নিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য এবং চেয়ারম্যানকে জানানো হলে চেয়ারম্যান ওই বিরোধীয় জমিতে কোন প্রকার ঘর কিংবা কোন কিছু না করে এ ব্যাপারে উভয় পক্ষকেই অবহিত করেন। চেয়ারম্যানের নিষেধ উপক্ষো করে সামছুদ্দিন সিকদার জোরপূর্বক বিরোধীয় ওই জমিতে রাতের আঁধারে একখানা ঘর উত্তোলন করেন এবং দিনের বেলা জমিতে বালু ফেলতে যায়।

এ সময় গত রবিবার নিহত মোস্তাফিজুর রহমান ও তার ছেলে বাধা দিতে গেলে তাদের সাথে সামছুদ্দিন গংদের সাথে এক পর্যায়ে তর্ক-বির্তক শুরু হয়। এরই এক পর্যায়ে সামছুদ্দিন গংরা স্কুল শিক্ষক ও তার ছেলেকে বেধরক মারধর করে সামছুদ্দিন গংরা। প্রতিপক্ষ গ্রুপ মোস্তাফিজুর রহমানকে লাঠি-সোটা দিয়ে মারধর করে। এসময় তার ছেলেও আহত হন। গুরুত্বর আহত অবস্থায় মোস্তাফিজুর রহমানকে উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন এবং পুরুষ সার্জারী ওয়ার্ডের অতিরিক্ত ৬নং বেডে চিকিৎসাধীন ছিলেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার দুপুরে মোস্তাফিজুর রহমানের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় পুলিশ এক জনকে আটক করেছেন।

নিহতের স্বজনরা আরো জানান, আমরা আমদের জমিতে দীর্ঘদিন যাবত ভোগ দখল আছি। অথচ ওই জমিতে সামছুদ্দিন গংরা নিজেদের দাবী করে আসছে। ওই বিরোধীয় সম্পত্তি নিয়ে গত রবিবার মোস্তাফিজুর রহমানকে বেধরক মারধর করে প্রতিপক্ষ গ্রুপ। এতে তাকে গুরুত্বর আহত হয়ে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় এবং সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যু বরণ করেন। আমাদের দাবী সামছুদ্দিন গংদের মারধরের কারণে মোস্তাফিজুর রহমান মৃত্যু বরণ করেছেন। এই বিষয়ে অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও কাউকে পাওয়া যায়নি বিধায় তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

উত্তর দীঘলদী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লিয়াকত হোসেন মুনসুর জানান, নিহত মোস্তাফিজ ও অভিযুক্তরা আত্মীয়-স্বজন। তাদের বিরোধীয় জমিতে একটি ঘর উত্তোলন নিয়ে মারধর হয়েছে শুনেছি। এর আগে আমি সামছুদ্দিনকে বিরোধীয় জমিতে ঘর উত্তোলন না করার জন্য নিষেধ করেছি। আমি বলেছি আমরা বসে ফয়সালা করবো, কিন্তু আমাদের কথা না মেনে তিনি ওই জমিতে বালু ফেলতে গেলে মোস্তাফিজ বাধা দেয়। এসময় সামছুদ্দিন মোস্তাফিজকে মারধর করে পরে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন, আর সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

এই বিষয়ে ভোলা সদর থানার ওসি ছগির মিঞা জানান, আমরা লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছি এবং কাদের নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছি।

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি