LalmohanNews24.Com | logo

১৩ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৬শে জুন, ২০১৯ ইং

ভোলাকে আধুনিক ও শান্তিপূর্ণ জনপদে গড়ে তোলার অঙ্গিকার ৪ প্রার্থীর

ভোলাকে আধুনিক ও শান্তিপূর্ণ জনপদে গড়ে তোলার অঙ্গিকার ৪ প্রার্থীর

নির্বাচনে যেই বিজয়ি হোক ভোলার উন্নয়নে সবাই কাজ করে যাবেন একত্রে। ভোলাকে গড়ে তুলবেন আধুনিক, উন্নত, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত, শিক্ষাবান্ধব জনপদ হিসেবে। ভোলার মানুষের সুখে-দুঃখে দলমত নির্বিশেষে সবাই একসাথে কাজ করে যাবেন। শান্তিপুর্ণ ভোলাকে আরো আধুনিক, উন্নত এবং বাংলাদেশের মধ্যে শ্রেষ্ঠ জেলায় রুপান্তরিত করতে বিজয়ি প্রার্থীকে সহায়তা করে যাবেন সকলে। শনিবার দুপুরে শহরের বাংলা স্কুল মাঠের ভাষানী মে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) এর আয়োজনে আগামি একাদশ জাতিয় সংসদ নির্বাচনে ভোলা-১ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বীতাকারি প্রার্থীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত “জনগনের মুখোমুখি অনুষ্ঠানে” ভোলার প্রার্থীরা এই আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

সুজনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দিলিপ কুমার সরকারের স ালনায় ও ভোলা জেলা সুজনের উপদেষ্টা মোবাশ্বির উল্লাহ চৌধুরির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভোলা-১ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বানিজ্যমন্ত্রী আলহাজ্ব তোফায়েল আহমদ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী মাওলানা ইয়াসিন নবীপুরি, জাতিয় পার্টির (জাপা) লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী কেফায়েত উল্লাহ নজিব, বাংলাদেশ কমিউনিষ্ট পার্টির কাস্তে প্রতীকের প্রার্থী এডভোকেট সোহেল আহমদ। অনুষ্ঠানে বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফন্টের মনোনিত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী গোলাম নবী আলমগীর উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও অসুস্থ্যতা জনিত কারনে আসতে পারেননি।
অনুষ্ঠানে প্রার্থীরা আগামি নির্বাচনে বিজয়ি হলে জনগনের কল্যাণে কি কি করবেন এবং তাদের দলের নির্বাচনি ইশতেহার জনকল্যাণমূলক বিষয়গুলো তুলে ধরেন।

এ সময় তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ভোলার নির্বাচনী পরিবেশ খুবই ভাল, শান্তিপূর্ণ। আমি বিএনপি প্রার্থী গোলাম নবী আলমগিরের বাড়িতে গিয়েছি। শুভেচ্ছা বিনিময় করেছি। এখানে কারো প্রচার প্রচারণায় বাঁধা দেয়া হচ্ছে না। তবে তারা নিজেরাই মানুষের কাছে যাচ্ছে না।

তোফায়েল আহমেদ আরও বলেন, বিএনপি আমলে ভোলায় পানি সম্পদ মন্ত্রী ছিল, কিন্তু ভোলার নদী ভাঙন প্রতিরোধে কোন কাজ করেনি। আমরা ভোলার নদী ভাঙন রোধে ব্লক বাধ দিয়েছি। নদী ভঙন বন্ধ করেছি। ভোলায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। ‘আমার গ্রাম আমার শহর’ এই শ্লোগান নিয়ে গ্রামগুলোতে শহরের সকল সুবিধা পৌছে দিয়েছি। সারা দেশের গ্রামগুলো শহরে রূপান্তর করা হবে।

অনুষ্ঠানে ভোলা সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর গোলাম জাকারিয়া, সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর রুহুল আমিন জাহাঙ্গির, ভোলা পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মনিরুজ্জামান মনির, ভোলা বারের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট নুরুল আমিন নুরনবী, পিপি সৈয়দ আশরাফ হোসেন লাভু, সুজনের সভাপতি ও ভোলা জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সাফিয়া খাতুন, বিটিভির জেলা প্রতিনিধি প্রবিন সাংবাদিক ও ভোলা প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক এম এ তাহের, সুজনের সভাপতি নাসির লিটনসহ ভোলার বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও অনুষ্ঠানের সদর আসনের ভোটার ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

হাসান পিন্টু

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি