LalmohanNews24.Com | logo

৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খুলতে গিয়েই লাখপতি হলেন দরিদ্র বৃদ্ধা!

বিজ্ঞাপন

ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খুলতে গিয়েই লাখপতি হলেন দরিদ্র বৃদ্ধা!

অ্যাকাউন্ট তো দূরের কথা, জীবনে কখনও ব্যাংকের দরজাও মাড়াননি এক বৃদ্ধা। অথচ তার নামেই অ্যাকাউন্ট রয়েছে ব্যাংকে। আর সেই অ্যাকাউন্টে রয়েছে দুই লাখ টাকা।

একসঙ্গে ২০ হাজার টাকা কখনও দেখেননি ওই বৃদ্ধা। তাই অ্যাকাউন্টে দুই লাখ টাকার কথা শুনে রীতিমতো অবাক বৃদ্ধা ও তার স্বামী।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের ফারাক্কা ব্যারাজ শাখায়।

শুক্রবার ওই ব্যাংকে বিড়ি শ্রমিক হিসেবে নিজের নতুন অ্যাকাউন্ট খুলতে গিয়েই ৫৫ বছর বয়সী মানোয়ারা বিবির মাথায় হাত। ব্যাংক কর্মকর্তারা তার আধার কার্ড হাতে পেয়ে জানিয়ে দেন মহিলার নামে ওই ব্যাংকেরই পাশের শাখায় রয়েছে একটি অ্যাকাউন্ট। শুধু তাই নয়, ওই অ্যাকাউন্টে এ মুহূর্তে দুই লাখ টাকাও জমা রয়েছে।

স্ত্রী মানোয়ারার সঙ্গে থাকা বয়োবৃদ্ধ স্বামী জালাউদ্দিনের তখন ব্যাংক কর্মকর্তার কথা শুনে চোখ কপালে উঠেছে। বৃদ্ধার স্বামী বলেন, কি বলেন বাবু? কুড়ি হাজার টাকাই একসঙ্গে কখনও চোখে দেখিনি। বাড়িটার ছাদটাও ঠিকমতো দিতে পারিনি এখনও টাকার অভাবে। অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য ব্যাংকেই আসিনি। আর সেখানেই কিনা দুই লাখ টাকা!

ওই বৃদ্ধা আবারও ব্যাংক কর্মকর্তাকে সব কিছু মিলিয়ে দেখতে বলেন। পরে ব্যাংক কর্মকর্তা সব কিছু মিলিয়ে দেখেন অ্যাকাউন্টা তারই নামে।

পরে তারা কোনো জালিয়াতিতে জড়িয়ে পড়ার ভয়ে ব্যাংকের কাছে লিখিত অভিযোগপত্র জমা দেন। এ ছাড়া রাতেই তারা ফারাক্কা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

ফারাক্কা থানার উদয়শঙ্কর ঘোষ জানান, অন্যের আধার নম্বর পাওয়া হয়তো সহজ। কিন্তু আধার কার্ডে থাকা ছবি, আঙুলের ছাপ এসব মিলিয়ে দেখেই তো নতুন অ্যাকাউন্ট খোলার কথা। তা হলে মানোয়ারার ভুয়া অ্যাকাউন্ট খোলা হল কিভাবে? ব্যাংককেই তো বলতে হবে এটা কিভাবে হল?

ওই ব্যাংকের শাখা প্রবন্ধক অনন্ত কুমার ঘোষ অবশ্য বলেন, কীভাবে এটি ঘটেছে বলতে পারব না। কাগজপত্র পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি