LalmohanNews24.Com | logo

২রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

দৌলতখানে বসত ঘর নিয়ে দুই ভাইয়ের বিরোধ

দৌলতখানে বসত ঘর নিয়ে দুই ভাইয়ের বিরোধ

দৌলতখান প্রতিনিধি: দৌলতখানে বসত ঘর উঠানো কে কেন্দ্র করে আপন দুই ভাই এর মধ্যে দন্ধ তৈরি হয়েছে। যা নিয়ে একাধীকবার শালিসি বৈঠক অনুষ্ঠিত হলেও এক ভাই ছার দিতে নারাজ তবে তার দাবি অযৌক্তিক বলে বলছেন এলাকার লোকজন। উপজেলার চরখলিফা ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের মৃত তাজুল ইসলামের ৫ ছেলে ১ মেয়ে।দুই ছেলে প্রবাসি মেয়ের অন্যএ বিবাহ হয়েগেছে।

তাজুলইসলাম মারা জাবার পর বাড়ির জমি ৫ ছেলের মধ্যে সঠিক বাবে বন্টন করে দেওয়া হয়।মূল বসত ঘড়টি দুই ভাই প্রবাসি মন্জুর ও( অঃ) সেনা সদশ্য মাকছুদ কে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। মন্জুর তার অংশে নির্মান কাজ সুরু করলে মাকছুদ বাধা দিচ্ছে তার দাবি তাকে ঠকানো হয়েছে।

গত ২৯-০৮-১৯ তারিখ মন্জুরের অংশের কাজ শুরু করলে মাকছুদ বাধা দেয় অথছ তাকে সমান ভাগে মূল বসত ঘড় ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। দুটি ঘড় ই জাতে আড়ালে না পড়ে সে কথা মাথায় রেখে শালিসি কারি গন নিদৃষ্ট সিমানা নির্ধারন করে দেন কিন্তু তাতে মানছেন মাকছুদ।

সঠিক কোন কথাও বলছেন না তার দাবি কি তাও ইস্পষ্ট করে তার বউ বলতে পারছেন না।মোট জমি ৭৬ (২৪ সতাংশ)এর মধ্যে দুই ভাই কে ৩৭/৩৭ করে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে অংশ হারে ৬ সতাংশ মাকছুদ পাওনা হয়েছে কিন্তু সে বেসি দাবি করছে। অন্য ভাই”রা বলছে সে দুষ্ট প্রকৃতির লোক মানুষের নামে মিথ্যা কথা রটায়।

তার ঘড় থেকে টাকা,স্বর্ন চুরি হয়েছে বলে প্রচার করছে সে মূলত ভাই দের জমি আত্বস্বাধ করতে এমনটা করছে। এলাকার লোকজন বলছেন মাকছুদ লোভি প্রকৃতির লোক সে কাউকে মানতে চাচ্ছেনা। মাকছুদের বউ হালিমা বেগম বলছেন আমাদের কে ঘড়টি যেভাবে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে তা সঠিক হয় নি কারন আমার ভাসুরের অংশের পার্স্বে আমাদের কে জমি বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে সেটা আমরা চাচ্ছি না।আমারা সব টাই একপার্স্বে চাচ্ছি।

অন্যদিকে মন্জুরের বউ বলছেন সবার সুবিধার কথা চিন্তা করে ভাগ করা হয়েছে এতে কেনো জে আমার দেবর জ্বামেরা তৈরি করছে বুঝি না। সে ইচ্ছে করে জট পাকাচ্ছে। এলাকার মানুষ বলছে মাকছুদ কে থামাতে হবে সে কাউকে মানতে চাচ্ছে না।

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি