LalmohanNews24.Com | logo

৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দরিদ্র পরিবারের কাছে ত্রাণ নিয়ে যাচ্ছেন মাফিয়ারা!

দরিদ্র পরিবারের কাছে ত্রাণ নিয়ে যাচ্ছেন মাফিয়ারা!

করোনাভাইরাস সংকটের মধ্যেই অর্থনীতিকে টেনে তোলার চেষ্টা করছে ইতালি সরকার। কিন্তু এই সংকটকাল কাজে লাগিয়ে জনগণের মাঝে নিজেদের স্থান করে নেয়ার চেষ্টা করছে স্থানীয় মাফিয়া চক্র। ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের খবরে এমন তথ্যই মিলেছে।

তারা কোয়ারেন্টিনে থাকা দরিদ্র পরিবারগুলোর কাছে খাবার বিতরণ করছেন। কাজে যোগ দিতে না পারায় এসব পরিবারের নগদ অর্থ ফুরিয়ে গেছে।

মাফিয়ারা সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে জনপ্রিয়তা হাসিলের চেষ্টা করছেন। সাম্প্রতিক এমন কয়েকটি ভিডিও সামাজিকমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

তাতে দেখা যাচ্ছে, ক্যাম্পানিয়া, ক্যালাবারিয়া, সিসিলি ও পুগলিয়ার মতো দক্ষিণাঞ্চলীয় দরিদ্র এলাকাগুলোতে করোনাভাইরাস জরুরি অবস্থার মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী বিতরণ করছে স্থানীয় পরিচিত মাফিয়ারা। এ নিয়ে দেশটিতে উত্তেজনা বাড়ছে।

ক্যাটানজারো এলাকার প্রধান কৌঁসুলি ও মাফিয়াবিরোধী তদন্তকারী নিকোলা গ্রাটারি বলেন, গত এক মাস ধরে দোকান, ক্যাফে, রেস্তোরাঁ ও পানশালা বন্ধ রয়েছে। এসব অনানুষ্ঠানিক অর্থনীতিতে লাখ লাখ লোক কাজ করেন। চলতি সময়ে তাদের আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে।

কখন তারা কাজে ফিরতে পারবেন, সেই তথ্যও জানা নেই। জনগণকে সহায়তা করতে লোকজনকে কেনাকাটার রসিদ ইস্যু করেছে সরকার।

তিনি বলেন, কর্মহীন এসব লোককে যদি সরকার শিগগিরই সহায়তার হাত বাড়িয়ে না দেয়, তবে মাফিয়া সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে সাহায্য নিয়ে তাদের কাছে যাবে।

এর এভাবেই সাধারণ মানুষের ওপর তারা নিয়ন্ত্রণ আরোপের চেষ্টা করবেন বলে দাবি করেন নিকোলা গ্রাটারি।

করোনা সংকট মোকাবেলায় ইতালির লকডাউনে ৩৩ লাখের মতো মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। তাদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। তাদের মধ্যে অন্তত ১০ লাখ দক্ষিণাঞ্চলীয় এলাকাগুলোতে বসবাস করেন।

সেখানে বিনামূলে খাবার দিতে খুদে দোকানিদের চাপ দেয়ার খবর আসছে। চুরি বন্ধ করতে বড় বিপণিবিতানগুলোতে পুলিশকে টহল দিতে দেখা যাচ্ছে।

মানুষের মধ্যে অস্থিরতার তৈরি হয়েছে। মাফিয়া চক্র সেই সুযোগ নিতে পারে বলে খবরে উল্লেখ করা হয়েছে।

সাম্প্রতিক দিনগুলোতে শহরের দরিদ্র অংশে নিজেদের উপস্থিতি বাড়িয়েছে নেপলসের পুলিশ। সেখানে নিপলিটন মাফিয়া ক্যামোরার সঙ্গে লোকজনের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে বলে জানা গেছে। এলাকাটিতে মাফিয়া চক্র লোকজনের বাড়ি বাড়ি খাবার পৌঁছে দিচ্ছে।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ফেডেরিকো ভারেসা বলেন, মাফিয়ারা অপরাধী সংস্থা না। তারা দোকানপাট ও অঞ্চলগুলো পরিচালনা করতে চায়। অনেক সময় মাফিয়াদের অর্থনৈতিক দিকগুলো নিয়ে কথা বলেন ভাষ্যকাররা। কিন্তু একথা ভুলে গেলে চলবে না যে তাদের শক্তি স্থানীয় ভিত্তি থেকেই আসছে।

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি