LalmohanNews24.Com | logo

৫ই কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২০শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং

তজুমদ্দিনে গৃহবধুর শরীরে গরম লোহার ছেঁকা!

শরীফ আল-আমিন শরীফ আল-আমিন

তজুমদ্দিন উপজেলা প্রতিনিধি

প্রকাশিত : আগস্ট ০৫, ২০১৮, ১৯:১৪

তজুমদ্দিনে গৃহবধুর শরীরে গরম লোহার ছেঁকা!

ভোলার তজুমদ্দিনে যৌতুকের দাবীতে লোহার খুনতি গরম করে স্ত্রীর শরীরে ছেঁকা দিয়ে পোড়া ঘাঁয়ে লবন-মরিচ লাগিয়ে নির্যাতন করেছে এক পাষান্ড স্বামী। পুলিশ ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছেন। অভিযুক্ত স্বামী পলাতক রয়েছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গৃহবধু পারভীন বেগম (২২) সাথে কথা বলে জানাযায়, শম্ভুপুর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের লামচি গ্রামের মৃত আঃ মোতালেবের ছেলে নুর ইসলাম (৪৫) এর সাথে চার বছর আগে বিয়ে হয়। এটি নুর ইসলামের ৪র্থ বিয়ে যা সে বিয়ের সময় গোপন রাখে। ইতিমধ্যে তাদের ঘরে একটি পুত্র সন্তান জন্ম নেয়। বিয়ের পর থেকে নুর ইসলাম যৌতুকের দাবীতে নির্যাতন করতে থাকে। সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে নিজের ৮ শতক জমি স্বামীকে দলিল দেন।

তারপরও বন্ধ হয়নি নির্যাতন। পারভীন আরো জানায়, বুধবার রাতে বড় সতিন জোসনা, মেয়ে জুনু সহ স্বামী নুরইসলাম গরম লোহার খুনতি দিয়ে পিট, উরুসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছেঁকা দেয়। চিৎকার দিলে মুখের মধ্যে ওরনা ডুকিয়ে হাত পা বেঁধে পোঁড়া ঘাঁয়ে লবন-মরিচ লাগিয়ে দেয়। এরপর দুদিন তারা ঘরের মধ্যে আটকিয়ে রাখে। গৃহবধুর ভাই মোঃ বাবুল জানান, প্রতিবেশীরা টের পেয়ে গোপনে মোবাইল করলে বিষয়টি পুলিশকে জানাই।

এসআই মনিরুজ্জামান জানান, আহত গৃহবধুকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালের চিকিৎসক ডাঃ মুজাহিদুল ইসলাম জানান, গৃহবধূর পিটসহ শরীরের কয়েকটি স্থানে পোড়া ক্ষত রয়েছে। যা গরম কিছু দিয়ে ছেঁকা দেয়া হয়েছে এমন অনুমান হয়।

থানা অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) ফারুক আহমেদ জানান, অভিযুক্ত স্বামী পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের অব্যাহত প্রচেস্টা চলছে।

হাসান পিন্টু


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি