LalmohanNews24.Com | logo

২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

তজুমদ্দিনের শম্ভুপুর শাহে আলম মডেল কলেজে ডিজিটাল হাজিরা

বিজ্ঞাপন

তজুমদ্দিনের শম্ভুপুর শাহে আলম মডেল কলেজে ডিজিটাল হাজিরা

শরীফ আল-আমীন ও এমরান মাতাব্বর, তজুমদ্দিন থেকে: শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে যুগ যুগ ধরে চলে আসা ছাত্র ছাত্রীদের হাজিরা পদ্ধতি এনালগ থেকে এখন ডিজিটাল পদ্ধতি চালু হয়েছে। শম্ভুপুর ইউনিয়ন পরিষদের সহযোগিতায় নতুন এ ধারার সূচনা করেছে তজুমদ্দিন উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীট শম্ভুপুর শাহে আলম মডেল কলেজ। খাতা কলমের পরিবর্তে উপস্থিতি গ্রহনের জন্য চালু হয়েছে বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতিতে আঙ্গুলের ছাপ। ডিজিটাল এই হাজিরা পদ্ধতির মাধ্যমে দৈনন্দিন ক্লাসের উপস্থিতি, মাসিক গড় হাজিরা বের করা, কলেজে প্রবেশ ও বের হওয়ার সময় ফিঙ্গার এর মাধ্যমে অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হবে কলেজ কর্তৃপক্ষ ও অভিভাবকেরা। কলেজে গিয়ে দেখা গেছে, লাইব্রেরির পাশে একটি যন্ত্র বসানো। ক্লাস শুরু হওয়ার পূর্বে সেখানে ছাত্র ছাত্রী ও শিক্ষক কর্মচারীরা বিশেষ এই যন্ত্রের উপর আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে ক্লাসে প্রবেশ করে। গত এক সপ্তাহ ধরে চলছে এই ডিজিটাল হাজিরা পদ্ধতি।

দ্বাদশ শ্রেণির মানবিক বিভাগের ছাত্রী হামিদা বেগম জানায়, গত কয়েকদিন ধরে আমাদের কলেজে ডিজিটাল পদ্ধতিতে হাজিরা নেওয়া হচ্ছে। সকালে কলেজে প্রবেশের সময় এবং ক্লাস শেষে বাড়ি ফিরে যাওয়ার সময় দৈনিক দুই বার এই হাজিরা নেওয়া হয়। ডিজিটাল এই পদ্ধতি আমাদের কাছে খুবই ভালো লাগে। যা আমাদের শিক্ষা ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে বলে আশা করি।

কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ মুঈনউদ্দীন বলেন, উপজেলায় এই প্রথম আমাদের কলেজেই বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতিতে হাজিরা পদ্ধতি চালু করেছি। ডিজিটাল এই হাজিরার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ক্লাস ফাঁকি দেওয়ার সুযোগ নেই। এতে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি যেমন বাড়বে তেমনি পড়াশুনায় তারা আরো মনোযোগী হবে। শিক্ষার্থীরা কলেজে প্রবেশ করে আঙ্গুলের ছাপের মাধ্যমে হাজিরা দিয়ে ক্লাসে প্রবেশ করবে ক্লাস শেষে পুনরায় হাজিরা দিয়ে কলেজ ত্যাগ করবে। যদি কোন ছাত্র ছাত্রী এই পদ্ধতিতে হাজিরা না দেয় তাহলে সে অনুপস্থিত থেকে যাবে।

শম্ভুপুর ইউপি সচিব মেজবাহ উদ্দিন বলেন, ”শম্ভুপুর ইউনিয়ন পরিষদ লোকাল গর্ভমেন্ট সাপোর্ট প্রজেক্ট-৩ (এলজিএসপি) থেকে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ডিজিটাল পদ্ধতিতে হাজিরার ব্যবস্থা ও ছাত্রছাত্রীদের ডাটাবেজ তৈরি করার ভবিষ্যতে অন্যন্যে প্রতিষ্ঠানগুলোতে কাজ করা হবে।

এ ব্যাপারে তজুমদ্দিন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুল হক দেওয়ান বলেন, বর্তমান সরকার স্থানীয় সরকারকে শক্তিশালী করতে এবং জনগনের চাহিদা মোতাবেক প্রকল্প বাস্তবায়ন করায় আমাদের লক্ষ। ধীরে ধীরে এটা আরো সম্প্রসারণ করা হবে”।

সম্পাদনায়: হাসান পিন্টু

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি