LalmohanNews24.Com | logo

২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৫ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ট্রাম্পের ‘বলির পাঁঠা’ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ট্রাম্পের ‘বলির পাঁঠা’ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তহবিল স্থগিতের ঘোষণার মধ্য দিয়ে করোনাভাইরাস মহামারীর ভয়াবহতা হালকা করে দেখেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

তার প্রশাসন ভাইরাসটি মোকাবেলায় যেভাবে সাড়া দিয়েছে, তা নিয়ে মানুষের মধ্যে সমালোচনা রয়েছে। এখন তা থেকে সবার মনোযোগ অন্যত্র নিয়ে যেতেই তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞরা অভিযোগ করেছেন।-খবর রয়টার্স ও সিএনএনের

দাতব্য সংস্থা প্রোটেক্ট আওয়ার কেয়ারের প্রধান লেসলি ডাচের মতও অনেকটা এ রকম। তিনি বলেন, করোনার তীব্রতা ট্রাম্প হালকা করে দেখার ইতিহাস রয়েছে ট্রাম্পের। তিনি এখন সেখান থেকে মানুষের মনোযোগ ভিন্নমুখী করার চেষ্টা করছেন।

লেসলি ডাচ বলেন, এটা নিশ্চিত যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ভুলের বাইরে না। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারী যখন তুঙ্গে, তখন সংস্থাটির তহবিল কাটছাঁট করা সব ধরনের দায়িত্বজ্ঞানহীনতাকে ছাপিয়ে গেছে।

মঙ্গলবারও যুক্তরাষ্ট্রে দুহাজার ২০০ জনের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এসবের ভেতরেও যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি কীভাবে খুলে দেয়া হবে, তা নিয়ে বিতর্ক চলছে।

কোভিড-১৯ রোগে যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে নিউইয়র্ক শহর। মঙ্গলবার পর্যন্ত রাজ্যটিতে ১০ হাজারের বেশি লোকের মৃত্যুর খবর এসেছে।

অর্থনীতি ও স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে ভারসাম্য নিয়ে আসতে লকডাউনের বিধিনিষেধ কিছুটা শিথিল করার কথা ভাবছেন বিশ্ব নেতারা।

লকডাউন কখন উঠিয়ে নেয়া যায়, সেই সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছেন ট্রাম্প। সেই প্রেক্ষাপটে কয়েকটি রাজ্যের ডেমোক্র্যাটিক গভর্নরদের ‘বিদ্রোহী’ বলে আখ্যায়িত করেছেন তিনি।

এর আগে নিউইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্রু কিউমো বলেছেন, মহামারী উসকে দিতে পারে, এমন যে কোনো নির্দেশ পালনে তিনি বিরত থাকবেন।

পহেলা মে অর্থনীতি চালু করার যে লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন ট্রাম্প, সেটাকে ‘অতিমাত্রায় প্রত্যাশা’ বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউসি।

কানেক্টিকাটে ডেমোক্র্যাটিক সিনেটর ক্রিস মার্ফি বলেন, যখন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও চীন ভুল করেছে, তখন ট্রাম্প প্রশাসন নিজেদের দোষ ঢাকতে চেষ্টা করছেন।

‘এখন, হোয়াইট হাউস ও তার মিত্ররা সমন্বিতভাবে একটি বলির পাঁঠা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে। ভাইরাস বিস্তারের শুরুর দিকে তারা যে প্রাণঘাতী ভুল করেছেন, সেটা থেকে মানুষের মনোযোগ অন্যত্র সরিয়ে নিতে তারা মরিয়া।

মার্ফি বলেন, চীনের প্রতি সদয় হওয়ায় ডব্লিউএইচওকে দায়ী করছেন মার্কিন প্রশাসন। অথচ সংকটের শুরুর দিকে ট্রাম্পই নিজেই ছিলেন চীনের প্রতি সবচেয়ে সহানুভূতিসম্পন্ন।

Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি