LalmohanNews24.Com | logo

১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২৫শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

জুম্মার নামাজ ও ঈদের জন্য শিথিল বিধিনিষেধ: কাশ্মীরে ফোন ও ইন্টারনেট পরিষেবা আংশিক চালু

জুম্মার নামাজ ও ঈদের জন্য শিথিল বিধিনিষেধ: কাশ্মীরে ফোন ও ইন্টারনেট পরিষেবা আংশিক চালু

টানা পাঁচদিন বিচ্ছিন্ন থাকার পর শুক্রবার সকাল থেকে জম্মু-কাশ্মীরে টেলিফোন ও ইন্টারনেট পরিষেবা আংশিকভাবে চালু করা হয়েছে। পাশাপাশি  জুম্মার নামাজ এবং ঈদের জন্য মানুষের চলাচলের উপর আরোপিত বিধিনিষেধ ধীরে ধীরে শিথিল করা হচ্ছে বলে সংবাদ সংস্থার খবরে বলা হয়েছে। তবে প্রশাসন সতর্ক নজর রাখছে পরিস্থিতির উপর। কাশ্মীরের প্রায় ৪০০ রাজনৈতিক নেতাদের এখনও গৃহবন্দি বা নিরাপত্তা হেফাজতে  রাখা হয়েছে। যাতে এই সব নেতার নেতৃত্বে কোনও বিক্ষোভ সমাবেশ না হতে পারে সেজন্যই এই সতর্কতা বজায় রাখা হয়েছে। ইতিমধ্যে কাশ্মীরে কারাগারে বন্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী কাজে যুক্ত অভিযোগে আটক প্রায় ৩৫ জন বন্দিকে আগ্রা কারাগারে সরিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে। কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার এবং রাজ্যকে দ্বিখন্ডিত করে দুটি আলাদা কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল কৈতরি করার পর থেকে জম্মু-কাশ্মীরে সর্বত্র আধা নেবাহিনীর কড়া টহলদারি চলছে। সর্বত্রই কড়া পাহারা।

রাস্তায় মানুষকে তল্লাশি এবং জেরার মুখে পড়তে হচ্ছে। গত শনিবারই জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিরাপত্তার কড়াকড়িতে মানুষের অসুবিধার কথা উল্লেখ করে বলেছেন, ঈদে মানুষ যাতে অংশ নিতে পারেন সেজন্য সব ব্যবস্থা করা হবে। উপত্যকার বাইরে থাকা কাশ্মিরীরা যাতে ঘরে ফিরতে পারেন তারও সবরকম ব্যবস্থা করার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এরপরেই শুক্রবার শ্বসরুদ্ধ পরিস্থিতি খানিকটা হাল্কা করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তবে শুক্রবার জুম্মার দিন হওয়া সত্ত্বেও শ্রীনগরের প্রধান জামা মসজিদের গেট বন্ধই রয়েছে। এই মসজিদে নামাজ পড়ার সুযোগ দেওয়া না হলেও গলিতে গলিতে যে সব মসজিদ রয়েছে সেগুলিতে নামাজ পড়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলে প্রশাসন সুত্রে জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, পরিস্থিতি খানিকটা শিথিল করার পর কোনরকম গোলমাল না হলে বিধিনিষেধ আরও শিথিল করা হবে। রাজ্যের পুলিশ প্রধান দিলবাগ সিং সংবাদ সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, মানুষের কাছাকাছি এলাকায় নামাজ পড়ার ক্ষেত্রে কোনও রকম বিধিনিষেধ নেই। তবে সকলকে নিজেদের এরাকার বাইরে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। রাজ্যের গভর্ণর সত্যপাল মালিক বৃহষ্পতিবার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করার পর জানিয়েছেন, জুম্মার নামাজ এবং আগামী সপ্তাহে ঈদের জন্য বিধিনিষেধ শিথিল করা হবে। ইতিমধ্যেই অনেক জায়গা থেকে কারফিউ প্রত্যাহার করে ১৪৪ ধারা বজায় রাখা হয়েছে। উপত্যকার বাইরে থাকা কাশ্মিরীরা ঘরে ফেরা শুরু করেছেন বলে জানা গেছে। সকলেই বিমানে করে শ্রীনগরে পৌঁছাচ্ছেন। ইতিমধ্যেই অতিরিক্ত বিমানেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে সরকারি সুত্রে জানানো হয়েছে।

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি