LalmohanNews24.Com | logo

৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২১শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

ছাত্রদলের সভাপতি পদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে হাফিজুর রহমান

এম ইউ মাহিম এম ইউ মাহিম

বিশেষ প্রতিনিধি

প্রকাশিত : জুন ২৬, ২০১৯, ২০:৩২

ছাত্রদলের সভাপতি পদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে হাফিজুর রহমান

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সহযোগী সংগঠন বিএনপির ভ্যানগার্ডখ্যাত জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের আসন্ন সম্মেলনকে ঘিরে চাঙ্গা হতে চলেছে ঐতিহ্যবাহী এ ছাত্রসংগঠনের তৃনমুলসহ সর্বস্তরের ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।এক এগারো পরবর্তী সময় হতে রাস্ট্রীয় ক্ষমতার বাহিরে দেশের জনপ্রিয় দল বিএনপি। দীর্ঘবছর দলটি ক্ষমতায় না থাকায় ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা অব্যাহত মামলা হামলার শিকার হওয়ায়  ছাত্রদলের দলীয় কার্যক্রম অনেকটাই ঝিমিয়ে পড়েছে। মূল দলের বাইরের অঙ্গসংগঠনগুলোতে বর্তমানে একই অবস্থা।
তাই বিএনপির অন্যতম সহযোগী অঙ্গসংগঠন ছাত্রদলকে চাঙ্গা করতে সম্মেলনের মাধ্যমেই নতুন নেতৃত্বের মাধ্যমে চমক দেখাতে চায় বিএনপি। সম্মেলনের মাধ্যমে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি হোক এমনটাই চান বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ বিএনপির হাইকমান্ড।নতুন কমিটিতে সভাপতি সম্পাদক পদে লড়ার জন্য ছাত্রদলের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের দৌড়ঝাপ শুরু হয়ে গিয়েছে। প্রার্থী হওয়ার আচরনবিধি, নির্ধারিত বয়স ও অবিবাহিত হওয়ার বাধ্যবাধকতা থাকায় ক্লিন ও স্বচ্ছ ইমেজ সম্পন্ন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা নতুন নেতৃত্বে আসার বিরাট সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

তবে সার্বিক বিবেচনায় ছাত্রদলের সভাপতি হিসেবে মৃত্যুঞ্জয়ী নেতা ক্লিন ইমেজের ঢাবি শাখার ছাত্রদল নেতা হাফিজুর রহমানকেই দেখতেই চায়  নেতা কর্মীরা। তৃনমুল নেতা-কর্মীদের সমর্থনে সভাপতি পদে তার এগিয়ে থাকার বিষয় এখন স্পষ্ট।সভাপতি পদে মৃত্যুঞ্জয়ী নেতা হাফিজুর রহমানকেই যোগ্য হিসাবে বিবেচনা করছেন ছাত্রদলের প্রতিটি ইউনিটের নেতাকর্মীরা। অনুসন্ধানে জানা যায়,তিনি দীর্ঘদিন  ব্যাপক সততার  সাথেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের নেতৃত্ব প্রদান করেছেন। ঢাবির দর্শন বিভাগ হতে অনার্স মাস্টার্স শেষে  বর্তমানে এমফিলে অধ্যয়নরত হাফিজুর রহমান ঢাবির নিয়মিত একজন ছাত্র। তিনি ঢাবি ছাত্রদলের জিয়া হলের সদস্য ও ঢাবি শাখার সিনিয়র যুগ্ন সম্পাদক ও বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক হিসেবে অত্যান্ত নিষ্ঠা ও দূরদর্শিতার সাথেই ছাত্রদলের নেতৃত্ব প্রদান করছেন।

তৃনমুল হতে শুরু করে সর্বোচ্চ লেভেলের নেতাদের নিকট তার রয়েছে বিশেষ গ্রহনযোগ্যতা।নবীন প্রবীণ সবারই পছন্দ হাফিজুর রহমান।দলের দুঃসময়ে নিবেদিতপ্রান গা বাচিঁয়ে চলা হাজারো নেতা কর্মীদের ভিড়ে হাফিজুর রহমান দলীয় আদর্শের পরিচয় দিয়েছেন।বিএনপির দুর্দিনে দুঃসময়ে তার ভূমিকা ও কর্মযজ্ঞ ছিল ব্যাপক প্রশংসনীয়। দলের প্রতি নিবেদিতপ্রান হাফিজুর ১/১১ এ ছাত্র আন্দোলন পরিষদের যুগ্ন আহবায়ক ছিলেন। ১৪ই জানুয়ারীর একতরফা নির্বাচনে যখন ঢাকার আন্দোলন ফ্লপ ছিল তখন জীবনের চরম ঝুঁকি নিয়ে রাজপথে ছাত্রদলের নেতা কর্মীদের নিয়ে মিছিল করে রাজপথেই সরব ছিলেন।

একাধিক মামলা হামলার শিকার হয়ে কারাভোগ করেন। শত অত্যাচার নির্যাতন সয়েও দলীয় নীতি আদর্শের পথ হতে নূন্যতম বিচ্যুত হন নি।  ছাত্রলীগের সসস্ত্র হামলায় মৃত্যুর মুখ হতে ফিরে এসেছেন।নিজ শরীরের তাজা রক্তে রাজপথ রঞ্জিত করেছিলেন।মাথায় ২৪টি সেলাই নিয়ে তিনি সুস্থ হয়ে এখনো বেচেঁ আছেন। তাইতো তিনি মৃত্যুঞ্জয়ী নেতা হিসেবেই সবার মাঝে খ্যাতি পেয়েছেন।দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্যও তিনি প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। মানবিক কাজ করেও দল মত নির্বিশেষে সবার কাছে জনপ্রিয়তা কুড়িয়েছেন।

ছাত্রদলের নেতা কর্মীরা মনে করেন তাকে সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত করলে ছাত্রদল তার হারানো ঐতিহ্য ফিরে পাবে,দলের ভাবমূর্তি ও সুনাম বাড়বে। সকল নেতাকর্মীদের নিকট জনপ্রিয় মৃত্যুঞ্জয়ী নেতা হাফিজুর রহমান বলেন, রাজনীতি করি একটি দলীয় আদর্শের জায়গা হতে।রাজনীতি করতে গিয়ে মেধা,সোনালী জীবন,যৌবনের অনেক কিছুই হারিয়েছি তবুও নীতি ও আদর্শের জায়গা হতে এক চুলও পিছপা হইনি। দল ও দলের নেতা কর্মীদের জন্য কাজ করেছি। সকল নেতা কর্মীদের সমর্থন,দোয়া ও ভালবাসা পেলে দলীয় হাইকমান্ড ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমানের নির্দেশে  ছাত্রদলকে এগিয়ে নিয়ে যাব। সকলের অন্তঃপ্রাণ অকৃত্তিম ভালবাসা ও সমর্থনই আমার চলার পথের পাথেয় হয়ে থাকবে। তিনি সম্মলেনে সকলের মুল্যবান সমর্থন কামনা করেন।

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি