LalmohanNews24.Com | logo

৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

করোনার করুণা নেই তাদের জন্য!

করোনার করুণা নেই তাদের জন্য!

সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী সারাদেশের ন্যায় ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলায় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে জনসমাগম ও চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এতে কর্মহীন হয়ে পড়েছে উপজেলার কর্মজীবী মানুষ। বিশেষ করে কাজ হারিয়ে চরম বিপাকে পড়েছে দিনমজুর, শ্রমজীবীসহ নিম্ন আয়ের মানুষজন। তারপরও ক্ষুধার জ্বালায় বাধ্য হয়ে, ঘরের বাইরে বেরুচ্ছেন হতভাগা কিছু মানুষ। নেই কাজ, নেই আয়। এ অবস্থায় দিশেহারা দিন এনে দিন খাওয়া এসব মানুষ। নীরব আর্তনাদ ছাড়া কিছুই যেন করার নেই তাদের।
৩১ মার্চ মঙলবার বিকাল প্রায় সাড়ে ৪ টার দিকে চরফ্যাশন সদর রোডের পাশে লকডাউনের কারনে বন্ধ হওয়া ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে প্রায় ১২-১৫ জন দিন এনে দিন খাওয়া মানুষদের এভাবেই আর্তনাদ করার দৃশ্য চোখে পড়ে। তাদের হাতে  পুরাতন বাজারের ব্যাগ দেখে অনুমান করা যায় কিছু পুরাতন জামা কাপড় রয়েছে এ ব্যাগে।
তাদেরকে জিগ্যেস করতেই চরফ্যাশন উপজেলার মাদ্রাজ ইউনিয়নের ইউসুফ (৪০) নামে এক ব্যক্তি  বলে উঠলেন, অাজ মঙলবার চরফ্যাশন বাজারে হাট বসার দিন, তাই অামরা এখানে বসে অাছি যদি কোথাও কেউ কাজ করাতে নিয়ে যায় সে অাশায়।
তাদের কে বলেছিলাম যে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে চরফ্যাশন উপজেলা প্রশাসন উপজেলার সাপ্তাহিক হাট বাজারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে, সে কারনে অাজ চরফ্যাশনে কোনো বাজার বসবেনা সেটা কি অাপনারা জানেন? এ ব্যাপারে সেখানে বসে থাকা চরফ্যাশন উপজেলার অামিনাবাদ ইউনিয়নের জসিম (৪২) নামে এক ব্যক্তি বললেন, রোগের ভয়ের চেয়ে পেটের ক্ষুধার জ্বালা অনেক বেশি। ঘরে বসে থাকলে খাবার দেবে কে? তাই বের হয়েছি। কিন্তু চরফ্যাশন শহরে মানুষ নাই। তাই কাজও পাইতাছি না। পেট চলব কেমনে?’ একই কথা জানালেন সেখানে বসে থাকা ওসমানগঞ্জ ইউনিয়নের শাহাজল মিয়া (৩৮)।
এদিকে করোনা পরিস্থিতিতে চরফ্যাসন উপজেলার অসহায় দরিদ্র কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর লক্ষে “মানুষ মানুষের জন্য” কর্মসূচী গ্রহণ করেছেন স্থানীয়  সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব। ৩১ মার্চ থেকে চলমান এ কর্মসূচীর আওতায় এমপি জ্যাকব চরফ্যাসন উপজেলায় ২০ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছেন। এ অনুদান থেকে প্রথম পর্যায়ে চরফ্যাসন উপজেলায় উপজেলা পরিষদের মাধ্যমে চরফ্যাসন উপজেলার ২১টি ইউনিয়নে ১’শ করে ২১’শ পরিবারের  মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করছেন বলে জানা যায়, এ ব্যাপারে তাদেরকে জিগ্যেস করতেই, তারা বলে উঠলেন এমপি মহোদয়ের এ খাদ্য সামগ্রী পেতে হলে  অামাদের ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেম্বারদের ধারে ধারে ঘুরতে হবে, সেখানে কেউ পাবে তো অাবার কেউ পাবেনা। তারা অারো বলেন, চেয়ারম্যান মেম্বারদের দোষ দিয়ে লাভ কি বলেন,চরফ্যাসনে  আমাদের মতো হাজার হাজার অসহায় পরিবার রয়েছে, সবাইকেতো এভাবে  খাদ্য সামগ্রী দেওয়া উনাদের পক্ষে সম্ভব না।
সরকারী ত্রান কিংবা ব্যক্তিগত কারো অনুদানের ব্যপারে তাঁরা কোনো অভিযোগ করছেন না, এমন পরিস্থিতিতে  এখনও তাঁরা আশায় বুক বেধে রাস্তায় নামেন, অন্তত কেউ এই মানুষগুলোকে কাজ দিয়ে তাদের পরিবারে অন্নের ব্যবস্থা করে দিবে। এ দৃশ্য চরফ্যাশন সদরের নয়, চরফ্যাসন উপজেলার রাস্তায় বের হলেই চোখে পড়ে নিম্নবিত্তের এমন হাহাকার, করোনা যাদের করছেনা একটুও করুনা।
এ ব্যাপারে চরফ্যাশন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রুহুল আমিন বলেন, চরফ্যাশন উপজেলায় প্রায় ১ লক্ষ এরকম অসহায় মানুষ রয়েছে যাহা একটি পরিবার অনুযায়ী হিসেব করলে ১০ হাজার পরিবার হবে। সে অনুযায়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের মাধ্যমে চরফ্যাসন উপজেলার ২১টি ইউনিয়নে ১’শ করে ২১’শ পরিবারের  মাঝে  চাল বিতরন করা হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে যারা এরকম কর্মহীন হয়ে পড়েছে তারাই এই খাদ্য সামগ্রী পাবে। এছাড়াও ভিজিএফ কার্ড ও মৎস্যজীবি কার্ডসহ সরকারের অনেক সাহায্য সহযোগীতা রয়েছে, যা অনেকেই পেয়েছে এবংভবিষ্যতে ও পাবে।
Facebook Comments Box


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি

error: সাইটের কোন তথ্য কপি করা নিষেধ!! মোঃ জসিম জনি