LalmohanNews24.Com | logo

৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৩ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং

ইলিশ ধরায় আসছে নিষেধাজ্ঞা: জেলে পল্লীতে দুঃচিন্তা!

ইলিশ ধরায় আসছে নিষেধাজ্ঞা: জেলে পল্লীতে দুঃচিন্তা!

এবছর ইলিশের ভরা মৌসুমেও জেলেদের জালে দেখা মেলেনি রুপালী ইলিশের। তবে মাস-খানেক আগে থেকে জেলেদের জালে ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়া শুরু করে রুপালী ইলিশ। কিন্তু আগামী ৭ থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত আসছে মা ইলিশ রক্ষায় ‘ইলিশের ওপর নিষেধাজ্ঞা’। এসময় নদীতে সর্বপ্রকার জাল নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে প্রশাসন। যার কারণে ভোলার লালমোহনের জেলেদের মাঝে দেখা দিয়েছে দুঃচিন্তা। জেলেরা দাবী করছেন সরকারি নিষেধাজ্ঞা আমরা মেনে চলার চেষ্টা করি। তবে এই সময়ে আমাদের জন্য যে বরাদ্ধ দেওয়া হয় তাও আমরা ঠিকমত পাই না।

উপজেলার ধলিগৌরনগর ইউনিয়নের বাতির খাল এলাকার মেঘনার জেলে আব্দুর রহিম, জামাল, মহসিন ও আব্দুর রশিদ জানান, প্রতি বছর আমরা নদীতে বিপুল পরিমানে মাছ পেলেও এবছর ইলিশ আমাদের জালে ধরা দিয়েছে অনেক দেড়িতে। তারপরে আবার কিছুদিন পরে থেকে শুরু হবে মা ইলিশ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা। আগের ধার-দেনাই এখন পর্যন্ত সামলাতে পারিনি। তার ওপর নদীতে যেতে পারবো না! আমরা এনিয়ে অনেক চিন্তায় রয়েছি।

পশ্চিম চর উমেদ ইউনিয়নের খালগোড়া এলাকার তেঁতুলিয়া নদীর জেলে সফিজল, রহিম, কুদ্দুস ও সেকান্তর জানান, প্রতি বছরই আমরা অবোরধ সঠিকভাবে পালন করার চেষ্টা করি। তবে অবোরধে সময় আমাদের জন্য যে বরাদ্ধ দেওয়া হয় আমরা তা ঠিকমত পাইনা। যার ফলে অবোরধের দিনগুলোতে আমাদের মানবেতর দিন পাড় করতে হয়। অবোরধের সময় যে বরাদ্ধ আমাদের জন্য দেওয়া হয়, তা যেনো আমরা সঠিকভাবে পাই।

এবিষয়ে উপজেলা মৎস্যকর্মকর্তা অনিক রহমান বলেন, উপজেলায় প্রায় সাড়ে ১৪ হাজার নিবদ্ধিত জেলে রয়েছে। যাদের অবরোধের সময় প্রতিজনকে ২০ কেজি করে চাল দেওয়া হবে। আর তারা যদি একটু অপেক্ষা করে তাহলে নদীতে ইলিশের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পাবে।

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি