LalmohanNews24.Com | logo

৫ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৮ই এপ্রিল, ২০১৯ ইং

অশ্রুজলে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সেন্টু স্যার

এম ইউ মাহিম এম ইউ মাহিম

বিশেষ প্রতিনিধি

প্রকাশিত : এপ্রিল ১৬, ২০১৯, ১৮:২৬

অশ্রুজলে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সেন্টু স্যার

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন লালমোহন সরকারী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবঃ প্রধান শিক্ষক শাহাবুদ্দিন সেন্টু স্যার। মঙ্গলবার দুপুর ২ঃ০০ঘটিকার সময় মরহুমের তিন দশকের ও বেশি সময়ের কর্মস্থল লালমোহন মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা শেষে ১নং ওয়ার্ড পৌরসভার মুন্সী  বাড়ির সবুজ বৃক্ষরাজিবেষ্টিত প্রাকৃতিক ছায়াঘেরা পারিবারিক কবরস্থানেই চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয় মানুষ গড়ার কারিগরখ্যাত এই মহান শিক্ষককে। হাইস্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত জানাযায় স্কুলের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী তার দীর্ঘদিনের সহকর্মী দল মতের উদ্ধে সব রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার হাজারো মানুষের ঢল নামে।জানাযায় উপস্থিত হওয়া মানুষের অকৃত্তিম ভালবাসা ও শ্রদ্ধায় লালমোহন হাইস্কুল প্রাঙ্গনে এক বেধনাবিধুর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। সবুজ গাছ গাছালি ঘেরা স্কুল প্রাঙ্গনও যেন নিরবে কেদেঁ উঠে। তার লাশবাহী খাটিয়া স্কুল প্রাঙ্গনে আসা মাত্রই সবার অশ্রুসিক্ত  কান্নায় আশে পাশের পরিবেশ শোকাবহ হয়ে উঠে।

মরহুমকে নিয়ে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সহ তার দীর্ঘদিনের সতীর্থরা স্মৃতি রোমন্থিত করে বলেন” সেন্টু স্যার  দক্ষিন ভোলায় শিক্ষকতার মত মহান পেশার  উজ্জল ভাবমূর্তি ছিলেন। তিনি  সৎ নীতিবান আদর্শ শিক্ষক ছিলেন। তার মত  আদর্শবান শিক্ষকের চলে যাওয়ার শুন্যতা কোন দিন পুরন হওয়ার নয়। সকলেই শিক্ষকতার পেশায় তার অবদানকে গভীর শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরন করেন।

সেন্টু স্যার অত্যান্ত সাহসী, ত্যাগী ও দক্ষ শিক্ষক ছিলেন।তিনি যথেষ্ট আন্তরিকতায় স্কুলে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করাতেন। শিক্ষার্থীদের ভাল ছাত্র হিসেবে গড়ে তুলতে পাঠদানের পাশাপাশি কোন ছাত্র যাতে সামাজিক ও নৈতিক অবক্ষয়ের মত কার্যকলাপে সম্পৃক্ত হতে না পারে সে দিকে তিনি কঠোর দৃষ্টি রাখতেন। স্কুলে শিক্ষার্থীদের শৃঙ্খলায় ও নিয়মিত স্কুলে আসা নিশ্চিত করনে তিনি কঠোর ছিলেন। তিনি স্কুলে ছাত্রদের  পিতার অভিবাবকের মত দায়িত্ব পালন করতেন যা তাকে ব্যাপক জনপ্রিয় করে তোলে। তিনি বিজ্ঞান শাখার শিক্ষক ছিলেন।স্কুলের বিজ্ঞান শাখার ছাত্রদের নিকট তিনি মেধাবী শিক্ষক হিসেবে অতুলনীয়  ছিলেন।  স্কুলে দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে ছাত্রদের প্রতি যতটা কঠোর ছিলেন কিন্তু স্কুলের বাহিরে তিনি ততটাই উদার ছিলেন,সকল ছাত্রদের তিনি অত্যান্ত স্নেহ করতেন,গভীর মমতায় ছাত্রদের কাছে টেনে নিয়ে আদর করতেন, ভালবাসতেন।  শিক্ষার্থীরাও তাকে খুব সমীহ ও শ্রদ্ধা করতেন। স্যারের মৃত্যুতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকও হয়ে উঠে শোকাবহ।দেশ বিদেশে অবস্থানরত তার হাজার হাজার প্রাক্তন ছাত্র ছবি সংবলিত স্টেটাস দিয়ে তার রুহের মাগফেরাত কামনা করে।

মঙ্গলবার  তার মৃত্যুর সংবাদ শোনার সাথে সাথেই পুরো লালমোহন জুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে।শোকাচ্ছন্ন হয়ে উঠে পুরো লালমোহন। চতুর্দিকে নেমে আসে একরকম সুনসান নীরবতা। মরহুমের আত্নীয় স্বজন,গুনগ্রাহী, সাবেক ছাত্র,দীর্ঘবছরের স্মৃতিবিজড়িত স্কুলের শিক্ষার্থী,সহকর্মী,এলাকার  হাজারো মানুষ সমবেদনা জানাতে মরহুমের বাড়িতে ভিড় করে।মানুষের উপচেপড়া ভিড় ও শোকার্ত মানুষের আহাজারি সকলকেই অশ্রুসিক্ত করে।

শাহাবুদ্দীন সেন্টু স্যার লালমোহন মডেল  মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১৯৬৬ সালে  এস.এসসি পাশ করেন।পরবর্তিতে বি.এস.সি শেষ করে ডাওরী হাইস্কুলে শিক্ষকতা শুরু করে লালমোহন মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ১৯৭৮সালের ২রা মে সহকারী শিক্ষক হিসাবে যোগদান করেন। ২০০৬ সালের ১লা জানুয়ারী ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসাবে যোগদান করে ২০১১সালের ৮মে তিনি অবসর গ্রহন করেন। প্রসঙ্গত সেন্টু স্যার ১৬ই এপ্রিল ৬টা ৩০ মিনিটে সবাইকে শোকের সাগড়ে ভাসিয়ে শেষ নিঃশ্বাষ ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী দু পুত্র ও এক কন্যা সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

লালমোহননিউজ/ এইচ.পি.

Facebook Comments


যোগাযোগ

বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়

লালমোহন, ভোলা

মোবাইলঃ 01712740138

মেইলঃ jasimjany@gmail.com

সম্পাদক মন্ডলি